logo

'পোশাক শিল্পের রপ্তানি বাড়াতে দূতাবাসগুলোকে সক্রিয় হতে হবে'

'পোশাক শিল্পের রপ্তানি বাড়াতে দূতাবাসগুলোকে সক্রিয় হতে হবে'

ঢাকা, ২৮ জানুয়ারি- তৃতীয় পক্ষের সহযোগিতা ছাড়াই তৈরি পোশাক শিল্পের রপ্তানি বাড়াতে জোর দিতে হবে বলে মনে করছেন ব্যবসায়ীরা। এতে একদিকে যেমন ক্রেতাদের আস্থা বাড়বে, অন্যদিকে অনাকাঙ্ক্ষিত অনেক বিতর্কই উতরে যাবে এই শিল্প।

এজন্য দূতাবাসগুলোকে আরও সক্রিয় ভূমিকা রাখার দাবি তাদের। তবে সরাসরি বাজার ধরার ক্ষেত্রে শ্রমিকদের দক্ষতা বৃদ্ধিকে আরও গুরুত্ব দেয়ার পরামর্শ অর্থনীতিবিদদের।

গত পাঁচ বছরের পোশাক রপ্তানির চিত্রে দেখা যায় প্রতিবছরই ছাড়িয়ে গেছে আগের বছরের রপ্তানি আয়। এমনকি এ শিল্পের ওপর ভর করেই এগিয়ে চলছে দেশের রফতানি প্রবৃদ্ধির গ্রাফ।

তবে এই শিল্প মালিকরা বলছেন, এখনও এ খাতের রপ্তানিমুখী ছোট ও মাঝারি আকারের তৈরি পোশাক কারখানার জন্য বড় চ্যালেঞ্জ সরাসরি বাজার ধরা।

এজন্য সম্ভাবনাময় বড় বাজার রাশিয়াসহ নতুন বাজার ধরতে কূটনৈতিক প্রতিনিধিদের আরও এগিয়ে আসার আহ্বান বিজিএমইএ'র।

তবে নতুন বাজার ধরা আর সেসব বাজারে চাহিদা মতো পণ্য সরবরাহে, শ্রমিকদের প্রযুক্তিগত এবং কারিগরি দক্ষতা বাড়ানোর কোন বিকল্প নেই বলে মনে করেন অর্থনীতিবিদরা।

পাশাপাশি রপ্তানিমুখী কারখানাগুলোর অনলাইন প্রোফাইল তৈরি এবং তা হালনাগাদ রাখারও পরামর্শ দিলেন তারা।