logo

বিতর্কিত দ্বীপে যাচ্ছেন তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট, যুক্তরাষ্ট্রের সমালোচনা

বিতর্কিত দ্বীপে যাচ্ছেন তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট, যুক্তরাষ্ট্রের সমালোচনা

তাইপেই, ২৮ জানুয়ারি- দক্ষিণ চীন সাগরের একটি বিতর্কিত দ্বীপ সফরে যাওয়ার পরিকল্পনা করেছেন তাইওয়ানের বিদায়ী প্রেসিডেন্ট মা ইং-জেউ। বিষয়টিকে ভাল চোখে দেখছে না যুক্তরাষ্ট্র।বৃহস্পতিবার ইটু-আবা দ্বীপের অধিবাসীদেরকে চীনা নববর্ষের শুভেচ্ছা জানাতে সেখানে যেতে চান জেউ। দ্বীপটির অধিবাসীরা মূলত তাইওয়ানি উপকূলরক্ষী এবং পরিবেশ বিষয়ক বিশেষজ্ঞ।

স্পার্টলি দ্বীপপুঞ্জে অবস্থিত ওই দ্বীপটি তাইওয়ান নিজেদের বলে দাবি করে। তাইওয়ান দ্বীপটির নাম দিয়েছে তাইপিং, তবে সেটি ইটু- আবা নামেও পরিচিত। মে মাসে তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট ইং-জেউ এর মেয়াদ শেষ হবে। তার আগে বিতর্কিত ওই দ্বীপে তার সফর দ্বীপটি নিয়ে আঞ্চলিক ‘বিতর্ক অবসানে কোনোভাবেই সহায়ক হবে না’ বলে সমালোচনা করেছে  যুক্তরাষ্ট্র।

আমেরিকান ইন্সটিটিউট ইন তাইওয়ান (এআইটি) এর মুখপাত্র সোনিয়া উরবম ইমেইলে রয়টার্সকে বলেন, “প্রেসিডেন্ট মা ইং-জেউ এর তাইপিং দ্বীপে যাওয়ার সিদ্ধান্ত আমাদের হতাশ করেছে।” “এ ধরনের উদ্যোগ অত্যন্ত অকেজো এবং দক্ষিণ চীন সাগরের মালিকানা নিয়ে বিতর্কের শান্তিপূর্ণ সমাধানে কোনও অবদান রাখবে না।”

চীন ও তাইওয়ান দক্ষিণ চীন সাগরের অধিকাংশের মালিকানা দাবি করে। এছাড়া মালয়েশিয়া, ফিলিপিন্স ও ব্রুনাইসহ আরও কয়েকটি দেশের মধ্যেও স্পার্টলি দ্বীপপুঞ্জের মালিকানা নিয়ে বিরোধ চলছে।

উরবম বলেন, যুক্তরাষ্ট্র দক্ষিণ চীন সাগর নিয়ে তাইওয়ানসহ সব পক্ষকে উত্তেজনা কমিয়ে আনার আহ্বান জানিয়েছে। নতুবা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে সতর্ক করে দিয়েছে।