logo

জেনে রাখুন পৃথিবীর সবচেয়ে সুন্দর দ্বীপগুলোর কথা

জেনে রাখুন পৃথিবীর সবচেয়ে সুন্দর দ্বীপগুলোর কথা

দ্বীপপুঞ্জ স্বর্গের স্বপ্ন দেখায়। সাংসারিক জীবনের ইঁদুর দৌড় থেকে পরিত্রাণের জন্য নির্মেঘ নীল সাগর পাড়ে বালির উপর শুয়ে আরাম করার ইচ্ছা সবারই থাকে। কিন্তু সকল দ্বীপপুঞ্জ একই ভাবে গঠিত নয়। কোন কোন দ্বীপের সৌন্দর্য সেই দ্বীপটি ঘিরে থাকা সমুদ্রের উপর নির্ভর করে। কোন দ্বীপ বিমোহিত  করে তার স্ফটিক স্বচ্ছ জলরাশির দ্বারা, কোনটি তার সমৃদ্ধ প্রবাল সাম্রাজ্য দ্বারা, কোনটির থাকে প্রাচুর্যময় অরণ্য, কোনটির মখমলের মত কোমল সুউচ্চ চূড়া। এছাড়াও দ্বীপের বাসিন্দাদের সাংস্কৃতিক ও ভৌগোলিক অবস্থানের ভিন্নতাও আকৃষ্ট করে মানুষকে। পৃথিবীর সেই রকম কিছু কল্পলোকের মত সুন্দর দ্বীপের কথা জেনে নেই আসুন।


১। মালদ্বীপ
পৃথিবীর সবচেয়ে মোহসঞ্চারি দ্বীপ হচ্ছে মালদ্বীপ। এই দ্বীপের চারপাশের সমুদ্রটিই একে সত্যিকার ভাবে স্ফুরিত হতে সাহায্য করেছে। ভারত মহাসাগরে উঁকি দেয়া দীপ্তিময় সবুজ জলরাশিকে ঘিরে মালদ্বীপ দ্বীপপুঞ্জটি গঠিত যার আছে চকচকে সাদা উপকূল এবং যাতে আছে ২৬টি প্রাকৃতিক প্রবাল প্রাচীর। এই দ্বীপপুঞ্জের বাসিন্দাদের একটি সুনাম হচ্ছে এরা এই গ্রহের সর্বনিম্ন মিথ্যাচারী জাতি। সাগর থেকে মাত্র তিন মিটার উঁচুতে এই দ্বীপটি অবস্থিত। প্রতিবছরই এটি সংকোচিত হচ্ছে। পৃথিবীর বিভিন্ন স্থান থেকে ভ্রমণ বিলাসী মানুষ বিশেষ করে ডুব সাঁতারুরা এই দ্বীপের প্রবাল প্রাচীর ও অতলান্ত মোহময় জলের টানে এখানে যায়। সার্ফিং এর জন্য ও এটি আদর্শ স্থান। এই দ্বীপপুঞ্জে আছে বিলাসবহুল রিসোর্ট যা থেকে সমুদ্র কে দেখা যায়। কিন্তু পৃথিবীর জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে এই দ্বীপপুঞ্জটি হুমকির মুখে আছে।


২। পালাওয়ান
ফিলিপাইন এর স্বর্গ হল পালাওয়ান দ্বীপ। এই দ্বীপটি বর্ণীও থেকে দক্ষিণ পশ্চিমে প্রসারিত। এই দ্বীপের মণি মুক্তার মত স্বচ্ছ সাগর থেকে উঠে এসেছে কঠিন চুনাপাথরের শৃঙ্গ। পানির উপরিভাগ থেকে মাছের চলা ফেরার দৃশ্য স্পষ্ট ভাবে দেখা যায়। চিক চিক করা সাদা বালুর উপর পাম গাছের ছায়া জঙ্গল পরিবেষ্টিত এই দ্বীপের বৈশিষ্ট্য। প্রবাল প্রাচীর, গ্রীষ্মমণ্ডলীয় মাছের বৈচিত্র্য এবং ডাইভিং এর জন্য সবচেয়ে ভালো স্থান হল পালাওয়ান দ্বীপ। এই দ্বীপের অন্য আকর্ষণীয় বিষয় গুলো হচ্ছে অনন্য বন্যপ্রাণী, পান্না হ্রদ এবং অদ্ভুত মাছ ধরার গ্রাম। মনোমুগ্ধকর দ্বীপ মালার সারিতে আছে উন্নতমানের রিসোর্ট। পালাওয়ানের সবচেয়ে আকর্ষণীয় স্থান হচ্ছে    Puerto  Princesa   Subterranean River National Park, যা  বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকায় আছে। এই পার্কে আছে চিত্তাকর্ষক চুনা পাথরের গুহা এবং ভূগর্ভস্থ নদী।    


৩। সান্তোরিনি

অ্যাজিয়ান সাগরে অবস্থিত সাইক্লেড দ্বীপ সান্তোরিনি। গ্রীসের এই দ্বীপটির নীলকান্ত জলরাশি, মিছরি রঙের বাড়ি, চকচকে সাদা বিল্ডিঙের নীল রঙের অর্ধ গোলাকার ছাদ ও ঝড়ো আকাশ মুগ্ধতা সৃষ্টি করে। কালো বালির সৈকত বা গ্রামের পথ আপনাকে শান্তি দেবে। সূর্যাস্তের জন্য বিখ্যাত Oia   এই দ্বীপেই অবস্থিত।


৪। কুক আইল্যান্ড
আপনি যদি দক্ষিণ প্রশান্ত মহাসাগরে ভ্রমণে যেতে চান তাহলে কুক আইল্যান্ড আপনার জন্য। ১৫টি দ্বীপ নিয়ে এই দ্বীপপুঞ্জ গঠিত। পান্না উপহ্রদ, সৈকতে পাম গাছের সারি, আগ্নেয়গিরির শৃঙ্গ আছে এই দ্বীপে। পাহারের পাশের গ্রাম গুলোতে গোলাপের অসংখ্য গাছ দেখা যায়। রবিনসন ক্রুসোর মত ফ্যান্টাসি চাইলে ঘুরে আসুন এই কুক আইল্যান্ডে।

এছাড়াও ইন্দোনেশিয়ার বালি ও গিলি দ্বীপ, ক্রোয়েশিয়ার ডালমেশিয়ান আইল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়ার ফিজি ও ক্যাঙ্গারু দ্বীপ, ফ্রেন্স পলিনেশিয়ার তাহা, নিউজিল্যান্ডের স্টুয়ারট আইল্যান্ড, জাপানের মিয়াকো আইল্যান্ড, ওয়াশিংটনের লোপেজ আইল্যান্ড, নিকারাগুয়ার লিটেল কর্ণ দ্বীপ, থাইল্যান্ডের কো ইয়ায়ো আইল্যান্ড, স্কটল্যান্ডের ইজলি অফ স্কাই, ইটালির লেম্পেডুসা ইত্যাদি দ্বীপগুলো সুন্দর দ্বীপগুলো নিজস্ব স্বকীয়তায় অনন্য।