logo

কোহলিকে ভালোবেসে ‘রাষ্ট্রদ্রোহ’, জেলে পাকিস্তানি ভক্ত

কোহলিকে ভালোবেসে ‘রাষ্ট্রদ্রোহ’, জেলে পাকিস্তানি ভক্ত

পাকিস্তানি হলেই যে ভারতীয় কোনো ক্রিকেটারের ভক্ত হওয়া যাবে না—এমন কিছুতে বিশ্বাস নেই উমর দ্রাজের। পাঞ্জাবের এই তরুণ বিরাট কোহলির ভীষণ ভক্ত। কোহলির নামে দ্রাজ এতটাই পাগল, কাল ভারত-অস্ট্রেলিয়া টি-টোয়েন্টি ম্যাচের দিন তাঁর বাড়ির ছাদে তুলে ফেললেন ভারতীয় পতাকা! ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবসে পাকিস্তানে এক আমজনতার বাড়ির ছাদে ভারতীয় পতাকা!

আর যায় কোথায়? পাকিস্তানি হয়েও বাড়ির ছাদে ভারতীয় পতাকা তোলার অপরাধে গ্রেপ্তার হতে হয়েছে এই ক্রিকেটপ্রেমীকে। তাঁর বিরুদ্ধে জনশৃঙ্খলা আইনে মামলা করা হয়েছে। নেওয়া হয়েছে পুলিশি রিমান্ডেও।

লাহোর থেকে প্রায় ২০০ কিলোমিটার দূরে পাঞ্জাবের ওকরা জেলায় বাস দ্রাজের। তাঁর বাড়ির ছাদে ভারতীয় পতাকা দেখে প্রতিবেশীরাই ব্যাপারটা পুলিশকে জানায়। অভিযোগ পেয়ে তাঁর বাড়িতে অভিযান চালিয়ে একটি ভারতীয় পতাকা ও কোহলির বেশ কয়েকটি পোস্টার উদ্ধার করে পুলিশ। স্থানীয় পুলিশ-কর্তা মুহম্মদ জামিল বলেছেন, ‘দ্রাজের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে আমরা একটি ভারতীয় জাতীয় পতাকা উদ্ধার করেছি।’

পুলিশি রিমান্ডে দ্রাজ নিজেকে কোহলির ‘পাগল ভক্ত’ হিসেবে দাবি করেছেন। কোহলির ভক্ত ঠিক আছে, কিন্তু পাকিস্তানি হয়ে বাড়ির ছাদে ভারতীয় পতাকা তোলার ব্যাপারে অবশ্য সবার কাছে ক্ষমাই চেয়েছেন। বলেছেন, কোহলির ভক্ত হওয়ায় আবেগের আতিশয্যে এমনটা করেছেন। এর পেছনে কোনো অসৎ উদ্দেশ্য ছিল না।

তবে তাঁর বক্তব্য, এটা যে অপরাধের পর্যায়ে পড়ে, এমন ধারণাই ছিল না। এ কারণে কর্তৃপক্ষের কাছে অনুরোধ করে দিয়েছেন ক্ষমা করে দিতে। বলেছেন, ‘আমাকে ভারতীয় ক্রিকেটের ভক্ত হিসেবেই দেখা হোক, গুপ্তচর নয়।’
বেচারা দ্রাজ, রাজনীতির হিসাব-নিকাশে নিষ্পাপ ভালোবাসাও যে কখনো কখনো অপরাধ, তা হয়তো বুঝতেই পারেননি! সূত্র: পিটিআই।