logo

ফিজিকে ২৯৯ রানে হারালো ইংল্যান্ড

 

ফিজিকে ২৯৯ রানে হারালো ইংল্যান্ড

 

লন্ডন, ২৭ জানুয়ারি- ড্যান লরেন্স ও জ্যাক বার্নহ্যামের জোড়া সেঞ্চুরির ওপর করে আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে উড়ন্ত সূচনা করেছে ইংল্যান্ড। বুধবার চট্টগ্রামের এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচে ইংলিশরা ২৯৯ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে ফিজিকে। টস জিতে ব্যাট করতে নেমে ৩ উইকেটে ৩৭১ রান সংগ্রহ করে ইংল্যান্ড। জবাবে ২৭.৩ ওভারে মাত্র ৭২ রানেই গুটিয়ে যায় ফিজির ইনিংস।

আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে ১৮ বছরের শিরোপা খরা কাটানোর লক্ষ্যে ইংল্যান্ডের শুরুটা দুর্দান্ত হয়েছে। অনূর্ধ্ব-১৯ এর ওয়ানডেতে রানের দিক থেকে এটি তৃতীয় বৃহত্তম জয় ইংলিশদের। এরআগে ২০০২ সালে ডাবলিনে অস্ট্রেলিয়া ৪৩০ রানে কেনিয়াকে হারিয়ে সবচেয়ে বড় জয় পেয়েছিল। একই সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৩০১ রানে স্কটল্যান্ডকে হারিয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ জয় পেয়েছিল।

বুধবার ইংল্যান্ডের করা বিশাল লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুতেই উইকেট হারিয়ে বিভ্রান্তিতে পড়ে আসরের নবাগত ফিজি। পরে দুই পেসার সাকিব মাহমুদ ও স্যাম কুরানের সামনের দাঁড়াতেই পারেননি তারা।

নবম ওভারে ১৭ রানের মধ্যে ছয় উইকেট হারায় ফিজি। তবে আরো বড় পরাজয়ের চোখ রাঙানি ছিল সে সময়। তবে দলের হার ততটা বড় হতে দেননি পেনি ভুনিওয়াকা।

দশম ব্যাটসম্যান হিসেবে ফেরার আগে সর্বোচ্চ ৩৬ রান করেন ভুনিওয়াকা। তিনি ছাড়া দুই অঙ্কে পৌঁছান কেবল জ্যাক চার্টার্স (১০)। এছাড়া অতিরিক্ত থেকে আসে ১০ রান। ইংল্যান্ডের ডানহাতি পেসার মাহমুদ তিন উইকেট পান মাত্র দুই রান খরচায়। বাঁহাতি পেসার কুরান ২২ রানে নেন তিন উইকেট। এছাড়া বেন গ্রিন দুই উইকেট নেন ৭ রানে।

এর আগে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে তৃতীয় ওভারেই ম্যাক্স হোল্ডেনকে হারায় ইংল্যান্ড। পরের উইকেটের জন্য ৪৭তম ওভার পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয় ফিজিকে। এই সময়ে যুব ওয়ানডে ক্রিকেটে প্রথম ত্রিশকের জুটি উপহার দেন ড্যান লরেন্স ও জ্যাক বার্নহ্যাম। যুব ওয়ানডেতে জুটির আগের রেকর্ডটিও হয়েছিল বাংলাদেশেই। ২০০৪ অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে বিকেএসপিতে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে ২৭৩ রানের জুটি গড়েছিলেন নিউজিল্যান্ডের বিজে ওয়াটলিং ও ব্র্যাড উইলসন।

যদিও লরেন্স পরে খুব কাছে গিয়ে ছুঁতে পারেননি ব্যক্তিগত মাইলফলক। যুব ওয়ানডের ইতিহাসে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ইনিংস অস্ট্রেলিয়ার থিও ডোরোপোলাসের ১৭৯ রান। আর যুব বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ ইনিংস ওয়েস্ট ইন্ডিজের ডেভন প্যাগনের ১৭৬। ফিজির বিপক্ষে বুধবার শেষ ওভারের দ্বিতীয় বলে আউট হওয়ার আগে লরেন্স করেছেন ১৭৪ রান। বার্নহ্যাম আগেই ফিরেছেন ১৪৮ রানে।

সর্বোচ্চ ইনিংসের রেকর্ড না ছুঁলেও এবারের যুব বিশ্বকাপের প্রথম শতকটি করেছেন লরেন্সই। ডানহাতি ওপেনার শুরু করেছিলেন ঝড়ের গতিতে। ৩৯ বলে ছুঁয়েছিলেন পঞ্চাশ। পরে স্ট্রোক সামলে মন দেন ইনিংস গড়ায়। সেঞ্চুরি করেন ১০৮ বলে। অষ্টম যুব ওয়ানডেতে লরেন্সের এটি দ্বিতীয় শতক। বার্নহ্যামের বিদায়ে ৪৭তম ওভারে ভাঙে ৩০৩ রানের রেকর্ড জুটি। ১৪৮ রান করা বার্নহ্যামের ১৩৭ বলের ইনিংসটি সাজান ১৯টি চার ও চারটি বিশাল ছক্কা দিয়ে।

যদিও যুব বিশ্বকাপ শুরুর আগেই অবশ্য ইংল্যান্ড দলের সবচেয়ে আলোচিত ক্রিকেটার ছিলেন এই লরেন্স। গত এপ্রিলে ইংল্যান্ডের কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশিপে গড়েছিলেন ইতিহাস। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে নিজের দ্বিতীয় ম্যাচেই এসেক্সের হয়ে সারের বিপক্ষে খেলেছিলেন ১৬১ রানের ইনিংস।