logo

ক্যান্সারের কথা বলে অর্থ আদায়ের অভিযোগে গ্রেফতার নারী

ক্যান্সারের কথা বলে অর্থ আদায়ের অভিযোগে গ্রেফতার নারী

ওয়াশিংটন, ২৭ জানুয়ারি- ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছেন এমন দাবি করে প্রায় ২৫ হাজার মার্কিন ডলার অর্থ সহায়তা পান ম্যারি বেনেট নামে এক নারী। কিন্তু আদতে ক্যান্সারে আক্রান্ত ছিলেন না এই মার্কিনী। এ তথ্য ফাঁস হওয়ার পর গ্রেফতার হতে হলো তাকে।

ঘটনার শুরু ২০১৩ সালে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেনেট শেয়ার করেন, তিনি ক্যান্সারের চতুর্থ পর্যায়ে আছেন। এজন্য সকলের সহায়তা চান।

এই পোস্টে সবাই তার সাহায্যার্থে এগিয়ে আসেন। কেউ অর্থ সহায়তা দেন, কেউ দেন উপহার। কিন্তু কিছু দিন পর জানা যায়। পুরো ব্যাপারটাই ছিল প্রতারণা।

পুলিশ জানায়, তার কোনো রকম ডাক্তারি প্রমাণ ছিল না যে তার ক্যান্সার। কিন্তু তিনি ফেসবুকে সবাইকে সাহায্যের জন্য ধন্যবাদ জানান এবং দাবি করেন মাত্র ২৭ বছর বয়সেই দ্বিতীয়বারের মতো ক্যান্সারে আক্রান্ত হন তিনি।

তার টুইটার বায়োগ্রাফিতেও লেখা ছিল তিনি একজন ক্যান্সার রোগী। আর এজন্য তাকে চাকরিচ্যুত করা হয় এবং খুবই অর্থকষ্টে দিনানিপাত করছেন তিনি।

বেনেটের পরিবার এ বিষয়ে কিছুই জানত না এবং তার ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার কোনো প্রমাণও নেই। এমনকি বেনেট নিজের চুল কামিয়ে ব্যান্ডেজ করে সহানুভূতি আদায়ের চেষ্টা করে।

এমরি উইনশিপ ক্যানসার ইনস্টিটিউট থেকে জাল কাগজপত্রও বের করে।  আর এতসব প্রতারণার জন্যই মূলত তাকে গ্রেফতার করা হয়।

জর্জিয়া পুলিশের ‍মুখপাত্র রড্রিগেজ বলেন, আমরা জানতে পারি কাগজপত্রের স্বাক্ষরও জাল ছিল। তারা জানায়, তারা কখনো বেনেটের চিকিৎসা করেনি।

প্রতিদিনই এই প্রতারণার অভিযোগ জানিয়ে অনেকে পুলিশের কাছে ফোন করছেন বলেও জানান তিনি।

তিনি বলেন, ‘আমাদের কাছে প্রমাণ রয়েছে যে ২০১০ সাল থেকেই সে এমনটা করে আসছে। আর যুক্তরাষ্ট্রে এটি অপরাধ। আপনি কাউকে ধোকা দিয়ে টাকা আদায় করতে পারেন না।‘

সূত্র: ডেইলি মেইল ও দ্য টেলিগ্রাফ