logo

বিশ্বের সবচেয়ে বেশি মদ্যপায়ী সৌদি নাগরিকরা

বিশ্বের সবচেয়ে বেশি মদ্যপায়ী সৌদি নাগরিকরা

রিয়াদ, ২৬ জানুয়ারি- বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডাব্লিউএইচও) মতে, বিশ্বে সবচেয়ে বেশি মদ্যপান করে সৌদি নাগররিকরা। ডাব্লিউএইচও’র সাম্প্রতিক একটি প্রতিবেদনের বরাত দিয়েএ তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সাময়িকী ল্যানসেট। সম্প্রতি আরব নিউজের এক প্রতিবেদনেও এ তথ্য উল্লেখ করা হয়েছে।

ল্যানসেটের গবেষণায় উল্লেখ করা হয়েছে, দেশটির মদ্যপায়ীদের প্রতিবছর গড়ে ৩৩.৯ লিটার মদ প্রয়োজন হয়। ল্যানসেট জানিয়েছে- বাংলাদেশে মদ্যপায়ীরা প্রতিবছর গড়ে ৯লিটার মদপান করে। মদপান নিয়ে ঢাকায় জাতীয় পর্যায়ে তেমন কোনো নজরদারি নেই।

সার্কভুক্ত দেশগুলোর মধ্যে প্রতিবছর সবচেয়ে বেশি অ্যালকোহল বা মদ পান করে নেপালের মদ্যপায়ীরা (২৮.৮ লিটার)। এ অঞ্চলে দেশটির পরই আছে ভারত (২৮.৭ লিটার), শ্রীলঙ্কা (২০.১ লিটার) ও মালদ্বীপ (১৩.৮ লিটার)।

সৌদি আরবে প্রত্যেক দিন ধূমপান বাবদ খরচ হয় পাঁচ কোটি রিয়াল (বাংলাদেশি মুদ্রায় ১০৫ কোটি টাকা)। গতকাল রোববার সৌদি আরবের তামাকবিরোধী সংগঠন টোবাকো অ্যান্ড নারকোটিকস কমব্যাট সোসাইটির প্রধান শেখ আবদুল্লাহ আল-ওথাইম এ তথ্য জানান। 

সৌদি আরবে এ সংগঠনটি কাফা নামে পরিচিত। বাদশা আবদুল আজিজ সম্মেলন কেন্দ্রে কাফা অ্যাওয়্যারনেস ফোরামের দ্বিতীয় বার্ষিক অনুষ্ঠানের উদ্বোধনের সময় এসব তথ্য জানান তিনি।

শেখ আবদুল্লাহ বলেন, ধূমপানের কারণে দেশটিতে প্রত্যেক বছর হাজার হাজার মানুষের প্রাণহানি ঘটছে।

তিনি বলেন, গত বছর ধূমপানের কারণে সৌদি আরবে ২৩ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া নেশার কারণে পরিবার ও রাষ্ট্রের বোঝাও বাড়ছে। 

নেশাগ্রস্তদের পুনর্বাসনে সম্প্রতি কাফা একটি বিশেষায়িত কেন্দ্র চালু করেছে। এই কেন্দ্রে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের মাধ্যমে তাদের সেবা দেয়া হয়। মক্কায় কাফার এ ধরনের ছয়টি কেন্দ্র রয়েছে।