logo

তানিয়া বৃষ্টির ইচ্ছে পূরণ

তানিয়া বৃষ্টির ইচ্ছে পূরণ

ঢাকা, ২৫ জানুয়ারী- ছোটবেলায় জাহিদ হাসান হারিয়ে যান। এরপর যখন তিনি পরিবারে ফিরে আসেন, তখন এমন দেখা যায়-পরিবারে দুজন সদস্য দেখতে একই রকম। আর এ দুজনের মধ্যে একজনের সঙ্গে তানিয়া বৃষ্টির বিয়ে ঠিক করা হয়। যখন আরেকজন ফিরে আসেন, তখন সবাই অবাক হয়ে যায়। কে আসল, কে নকল। এরপর বিয়ের দিন পাত্র পক্ষের পরিবার থেকে ফোন দিয়ে জানানো হয় কিছু দিনের জন্য বিয়ে স্থগিত করতে হবে।


তখন মেয়ে পক্ষের লোকজনকে অনেক কথাই শুনতে হয়। মেয়েটি কলেজ পড়ুয়া একজন ছাত্রী। হঠাৎ একদিন কলেজে যাওয়ার সময় জাহিদ হাসানের সাথে তাঁর দেখা হয়ে যায়। বিষয়টা এমন যার সাথে মেয়েটির বিয়ে ঠিক হয়েছে, তাঁকে সে পছন্দ করেন না। দ্বিতীয় যে তাঁর সাথে মেয়েটির বিয়ে হবে। তানিয়া বৃষ্টি তাঁকে প্রচন্ড বকাবকি করে। সে থাকে অনেকটা বোকা ধরনের মানুষ। সে কিছুই বুঝে না। যখন মেয়েটি তাঁকে অতিক্রম করে সামনে যাবে তখনই দেখবে দুজনই দেখতে একইরকম।

তখন মেয়েটি ভয় পেয়ে দৌঁড়ে চলে যায়। কোনটি আসল আর কে নকল? তানিয়া বৃষ্টি দেখতে পায় দুজনই তার দিকে তাকিয়ে রয়েছেন। আর এভাবেই এগিয়ে যায় ‘ফটোকপি’ নাটকের গল্প। নাটকটি পরিচালনা করছেন মজিবুল হক খোকন। ২৩ তারিখে নাটকটির দৃশ্যধারণ হয়েছে প্রিয়াঙ্কা শুটিং স্পটে। আর শনিবার নাটকের কাজ হয়েছে ধানমন্ডি লেক ও অন্যান্য স্থানে। এ নাটকে জাহিদ হাসান দ্বৈত চরিত্রে অভিনয় করলেও নায়িকা থাকছেন শুধু তানিয়া বৃষ্টি।


এদিকে তানিয়া বৃষ্টির শুরুটা ২০১২ সালের ‘ভিট চ্যানেল আই টপ মডেল’ প্রতিযোগিতা থেকে। তিনি সেবার দ্বিতীয় রানারআপ হয়েছিলেন। এরপর থেকে বিজ্ঞাপন, নাটকে কাজ করে নিজের জায়গাটা পাকা করে নেওয়ার পথে এগিয়ে চলছেন। আর শুরু থেকেই অপেক্ষায় ছিলেন জাহিদ হাসানের সাথে অভিনয় করবেন। এবার সে ইচ্ছে এখন পূরণ হয়েছে।

জাহিদ হাসানের সঙ্গে কাজের অভিজ্ঞতা কেমন? ‘জাহিদ ভাইয়ের সাথে কাজের অভিজ্ঞতা অনেক দারুণ। যখন ভিট প্রতিযোগিতা শেষ করলাম, তখন প্রায়ই ভাবতাম জাহিদ ভাইয়ের সাথে অভিনয় করব। তখন থেকে ভাইয়াকে বলতাম, ‘ভাইয়া আমি আপনার নায়িকা কবে হব?’ তিনবছর পরে গিয়ে আমি ভাইয়ার সাথে কাজ করার সুযোগ পেলাম। জাহিদ ভাইয়ের সাথে কাজ করতে গিয়ে মনে হয়েছে একই পরিবারের মানুষ আমরা। পরিবারের সদস্যদের মত করে আড্ডা দিয়েছি। অনেক আনন্দ নিয়েই কাজটি করেছি’। নাটকটি বেসরকারি টিভি চ্যানেল ‘চ্যানেল আইতে’ প্রচার হওয়ার কথা রয়েছে।