logo

যুক্তরাজ্যেও ধরা পড়লো জিকা ভাইরাস

যুক্তরাজ্যেও ধরা পড়লো জিকা ভাইরাস

লন্ডন, ২৩ জানুয়ারি- ল্যাটিন আমেরিকা এবং ক্যারিবীয় অঞ্চলের পর এবার যুক্তরাজ্যেও ধরা পড়লো জিকা ভাইরাসের আক্রমণ। কলম্বিয়া, সুরিনাম এবং গায়ানা ফেরত তিন পর্যটকের দেহে এই ভাইরাসের সংক্রমণ পাওয়া গেছে।

মশাবাহিত জিকা ভাইরাস ‘এক ব্যক্তি থেকে আরেক ব্যক্তির দেহে সরাসরি ছড়ায় না’, এক আনুষ্ঠানিক বিবৃতিতে জানিয়েছে পাবলিক হেলথ ইংল্যান্ড। তবে অল্প কিছু ক্ষেত্রে যৌনবাহিত হয়ে সঙ্গীর দেহে অথবা গর্ভবতী মায়ের প্ল্যাসেন্টার মাধ্যমে গর্ভের শিশুর মাঝে ভাইরাসটির সংক্রমণ হতে দেখা গেছে। জিকা প্রাকৃতিকভাবে যুক্তরাজ্যে পাওয়া যায় না বলেও বিবৃতিতে জানানো হয়।

এখন পর্যন্ত জিকা ভাইরাসঘটিত রোগের কোনো চিকিৎসা আবিষ্কার সম্ভব হয়নি। গর্ভবতী নারীর দেহে এর আক্রমণে গর্ভের শিশু মাইক্রোসেফালি রোগে আক্রান্ত হয় বলে মনে করছেন বিজ্ঞানীরা। জন্মগত রোগ মাইক্রোসেফালিতে শিশুর মস্তিষ্কের বৃদ্ধি বন্ধ হয়ে যায় এবং মাথার আকার অস্বাভাবিক রকম ছোট হয়।

গত অক্টোবরে ব্রাজিলে জিকার প্রাদুর্ভাবের পর থেকে সেখানে মাইক্রোসেফালিতে আক্রান্ত নবজাতকের সংখ্যা গাণিতিক হারে বাড়তে থাকে। অক্টোবর থেকে এখন পর্যন্ত এই রোগে আক্রান্তের প্রায় ৪ হাজারটি কেস পাওয়া গেছে।

ব্রাজিলের পাশাপাশি ল্যাটিন আমেরিকা এবং ক্যারিবিয়ার আরো অনেকগুলো দেশেও ভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়ে। জিকা এবং মাইক্রোসেফালির এই মহামারির ফলে কলম্বিয়া, ইকুয়েডর, এল সালভাদোর এবং জ্যামাইকা সরকার বাধ্য হয়েই আপাতত নারীদের গর্ভধারণ না করতে পরামর্শ দিয়েছে।