logo
পাকিস্তানে বিরল পাখি শিকারে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার

পাকিস্তানে বিরল পাখি শিকারে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার

ইসলামাবাদ, ২৩ জানুয়ারী- পাকিস্তানে বিরল প্রজাতির ‘হুবারা বাসটার্ড’ প্রজাতির পাখি শিকারের ওপর নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করেছে দেশটির সর্বোচ্চ আদালত। গত বছর পাখিটি শিকারের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল পাকিস্তান সুপ্রিম কোর্ট।

পাখিটির মাংসে যৌন উদ্দীপক শক্তি রয়েছে বলে শিকারিদের ধারণা। মধ্যপ্রাচ্য এবং উপসাগারীয় দেশগুলো থেকে প্রতিবছর অনেক শিকারি এটা শিকারের জন্য পাকিস্তানে আসেন। পাখিটি শিকার নিষেধাজ্ঞা দিলে পাকিস্তানের বিভিন্ন অনুন্নত এলাকায় ওইসব দেশের বিনিয়োগ কমে যাবে এবং মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর সাথে পাকিস্তানের সম্পর্ক খারাপ হতে পারে- এমন যুক্তিতে সুপ্রিম কোর্টের নিষেধাজ্ঞার রায়কে চ্যালেঞ্জ করে পাকিস্তান সরকার।

মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোই মূলত পাকিস্তানের আভ্যন্তরীণ খাতে প্রধান বিনিয়োগকারী। এছাড়া পাকিস্তান থেকে জনশক্তি রপ্তানিতেও শীর্ষে মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলো। গত বছরের নিষেধাজ্ঞার আগে পাখিটি শিকারে শিকারিদের জন্য বছরে ১০ দিন সময়সীমা এবং এ সময়ের মধ্যে ১০০টি পাখি শিকারের পরিমাণ নির্ধারণ করে দেয় দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।  

হুবারা পাখিটি দেখতে অনেকটা মোরগের মতো। এক সময় আরব উপদ্বীপে এটি বিপুল পরিমাণে দেখা গেলেও বর্তমানে অস্তিত্ব সংকটে আছে হুবারা। প্রকৃতি রক্ষায় আন্তর্জাতিক সংগঠন ‘দ্য ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন অব দ্য কনজারভেশন অব ন্যাচার’ (আইইউসিএন) এর তথ্য মতে, বর্তমানে বিশ্বে ৫০ হাজার থেকে ১ লাখের মতো হুবারা আছে। অস্তিত্ব সংকটে আছে- এমন প্রাণিদের তালিকায় এই পাখিটিকে রেখেছে আইইউসিএন।