logo

জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় ভূগোলবিদদের প্রতি অাহবান (ভিডিও সংযুক্ত)

পান্থ রহমান


জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় ভূগোলবিদদের প্রতি অাহবান (ভিডিও সংযুক্ত)

ঢাকা, ২৩ জানুয়ারি- নিজেদের মেধা ও মনন ব্যবহার করে জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলা ও দেশের খাদ্য নিরাপত্তায় ভূমিকা রাখতে ভূগোলবিদদের আহ্বান জানিয়েছেন কৃষি ও গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব শাইখ সিরাজ।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূগোল বিভাগের শিক্ষার্থীদের দ্বিতীয় মহাপুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে ভূগোলবিদের দেশের স্বার্থে কাজ করার আহ্বান জানান বক্তারা। এই অনুষ্ঠানে সম্মাননা দেয়া হয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভিসি অধ্যাপক নাসরিন আহমাদ এবং চ্যানেল আইয়ের পরিচালক ও বার্তা প্রধান শাইখ সিরাজকে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রে ভূগোল ও পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের বর্তমান ও সাবেক শিক্ষার্থীদের মিলনমেলা। দ্বিতীয়বারের মতো আয়োজিত এই পুনর্মিলনীতে হাজির হয়েছিলেন দেশ এবং দেশের বাইরে থাকা এই বিভাগের শিক্ষার্থীরা। তাতেই জমজমাট পুরো চত্বর।

বেলুন উড়িয়ে আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের পর ফুলেল শুভেচ্ছা দিয়ে শুরু হয় আনুষ্ঠানিক বক্তৃতা পর্ব। বক্তৃতায় শাইখ সিরাজ বলেন, জলবায়ু পরিবর্তন ইস্যু পুরো পৃথিবীর জন্য যতোটা বিপজ্জনক, তার মধ্যে তালিকায় শীর্ষে রয়েছে বাংলাদেশ। সুতরাং এর ফলে যে কোনো সময় খাদ্যশৃঙ্খল ও নিরাপত্তাশৃঙ্খলে ভাঙ্গন ধরতে পারে।

‘এবং এটা হবে’, বলেন শাইখ সিরাজ, ‘সমুদ্র উপকূলবর্তী বিভিন্ন এলাকার মাটিতে লবণাক্ততা এতোই বেড়ে গেছে যে, যেখানে উদ্ভিদ টিকে থাকতে হলে নতুন প্রযুক্তিতে বেশি লবণাক্ততা সহ্য করার যোগ্য বীজ তৈরি করা হচ্ছে।’

‘এই নতুন প্রযুক্তি ও মেধা আসবে আমাদের থেকে, ভূগোলবিদসহ অন্যান্য ক্ষেত্রের বিশেষজ্ঞদের থেকে। যারা আগামীর খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে নিজের মেধা কাজে লাগিয়ে ভবিষ্যৎ উজ্জ্বল করবে।’

বাংলাদেশের খাদ্য নিরাপত্তায় এই বিভাগের শিক্ষার্থীদের অবদানের প্রশংসা করেন বক্তারা।

অধ্যাপক নাসরিন আহমাদ বলেন, ‘আজকের অনুষ্ঠানের শাইখ সিরাজই মধ্যমণি। তবে অনেকেই তাকে ভূগোলবিদ হিসেবে চেনেন না। আমরাও তাকে সেভাবে দেখি না। দেখি টেলিভিশন ব্যক্তিত্ব হিসেবে। শাইখ সিরাজ তার কাজ, অনুষ্ঠান এবং লেখালেখি নিয়ে ব্যস্ত থাকেন। কিন্তু আমরাও চাইবো যেনো তিনি মাঝে মাঝে নিজের বিভাগে এসে নতুন শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলেন।’

ভূগোল বিভাগের সাবেক শিক্ষার্থী ও শিক্ষক অধ্যাপক নজরুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা অত্যন্ত গর্বিত শাইখ সিরাজ আমাদের বিভাগের ছাত্র ছিলেন। তিনি ভূগোলকে কাজে লাগিয়েছেনই, পাশাপাশি বাংলাদেশের কৃষি সমৃদ্ধির ক্ষেত্রে ব্যাপক অবদান রেখে চলেছেন।’

বক্তৃতা পর্ব শেষে অনানুষ্ঠানিক পর্বে যোগ দেন ভূগোল ও পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীরা। দীর্ঘদিন পর চেনা মুখগুলোর দেখা পেয়ে আবেগ আপ্লুত শিক্ষার্থীরা ছুটির দিনটি কাটিয়ে দেন আনন্দ আড্ডায়।