logo

ত্বকের সমস্যায় নিরাপদ চর্চা

ত্বকের সমস্যায় নিরাপদ চর্চা

নারীরা সাজসজ্জায় সব সময় এগিয়ে। আধুনিকতার ছোঁয়ায় তাদের সাজ পেয়েছে নতুন মাত্রা। ঘরোয়া পরিচর্যা ছাড়াও ত্বকের সৌন্দর্য বাড়াতে ছুটে যান পার্লারে। ঝটপট ত্বকের ট্রিটমেন্ট নিয়ে ফর্সা হয়ে চলে আসেন। অথচ ত্বক ফর্সার কাজে অধিকাংশ সময় নিম্নমানের উপকরণ ব্যবহার করা হয়। ধীরে ধীরে গোপণ ঘাতক বাসা বাঁধে ত্বকের অভ্যন্তরে। দেখা যায় সুন্দরী হতে গিয়ে টাকা দিয়ে কিনে আনেন নিজের ক্ষতি। অপরদিকে একটু সচেতনতা আপনাকে দিতে পারে প্রাকৃতিক সৌন্দর্য। তাই জেনে নেয়া যাক কৃত্রিমতাকে না বলে নিরাপদ ত্বক চর্চার উপায়।

রোদে পোড়া
রোদে পুড়ে মুখে ছোপ ছোপ বা তিলের মতো কালো দাগ পড়ে। আয়নার সামনে দাঁড়াতেই অস্বস্তিতে মন বিষিয়ে ওঠে। এসব অনাকাঙ্ক্ষিত দাগ থেকে ত্বককে মুক্ত করতে আলু ও শসার রস একসঙ্গে মিশিয়ে মুখে লাগাতে পারেন। পনের মিনিট রেখে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এভাবে এক সপ্তাহ ব্যবহারে দারুণ উপকার পাবেন।

ব্রণ
জায়ফল বেটে কাঁচা দুধের সঙ্গে মিশিয়ে লাগান। ঘণ্টাখানেক পর ভালো করে ধুয়ে নিন। ব্রণ হলে কখনোই নখ লাগানো যাবে না। অল্প কয়েক দিন ব্যবহারেই ব্রণ কমে যাবে।

চোখের নিচে কালো
অতিরিক্ত চিন্তা বা রাত জাগার কারণে চোখের নিচে কালি পড়ে। চোখের নিচের কালি থেকে মুক্তি পেতে রাতে ঘুমানোর আগে শসা বা আলুর রস চোখের নিচে লাগিয়ে রাখুন। সকালে উঠে ধুয়ে ফেলুন।

চোখের ফোলা ভাব
দুটি তুলার প্যাড তরল ঠাণ্ডা দুধে ভিজিয়ে দুই চোখের ওপর রাখুন। তুলা নরম হয়ে এলে তা বদলে নিন। প্রতিদিন ১৫ মিনিট তুলার প্যাড চোখে লাগান, চোখের ফোলাভাব কমে যাবে।