logo

১৩ হাজার পুরুষের দাড়ি কেটে দিল পুলিশ!

১৩ হাজার পুরুষের দাড়ি কেটে দিল পুলিশ!

খাতলুন, ২১ জানুয়ারী- তাজিকিস্তানে জোর করে ১৩ হাজার পুরুষের দাড়ি কেটে দিয়েছে  পুলিশ। পাশাপাশি ধর্মীয় পোশাক বিক্রির দায়ে ১৬০টি দোকান বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। বুধবার কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরা অনলাইন এ তথ্য জানিয়েছে।

খবরে বলা হয়, বিদেশি প্রভাবের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের অংশ হিসেবে গত বছর দেশটির পুলিশ বাহিনী ১৩ হাজার পুরুষের দাড়ি কেটে দেয়। একইসঙ্গে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে ১৬০টি দোকান। যেখানে নারীদের ইসলামিক পোশাক বিক্রি করা হতো।

গতকাল বুধবার দেশটির দক্ষিণ-পশ্চিমের খাতলুন অঞ্চলের পুলিশ প্রধান বাহরুম শারিফজোদা এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান। সেখানে ১৭শ নারীকে মাথায় কাপড় দিয়ে ঢেকে রাখতে মানা করা হয়েছে।

জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে এ পদক্ষেপগুলো নিয়েছে তাজিক সরকার। তাজিকিস্তান দীর্ঘদিন ধরে সেকুলার শাসকের অধীনে। দেশটিতে একটি সেকুলার ধারা রয়েছে। প্রতিবেশী আফগানিস্তানের মত মৌলবাদী নয় দেশটি।

গত বছর দেশটিতে পার্লামেন্টে ভোটে একটি প্রস্তাব পাশ হয়। যেখানে বলা হয়েছে বিদেশি আরবি শব্দে কেউ নাম রাখতে পারবে না। এছাড়া চাচাত ভাইবোনদের সঙ্গে বিবাহ নিষিদ্ধ করা হয়।

গত সেপ্টেম্বরে তাজিকিস্তান সুপ্রিমকোর্ট দেশটির ধর্মভিত্তিক রাজনৈতিক দলের রাজনীতি নিষিদ্ধ করে। দেশটিতে একটিমাত্র ইসলামিক দল ছিল। যার নাম ইসলামিক রিনাসেন্স পার্টি অব তাজিকিস্তান।

তাজিক সরকার এ পদক্ষেপকে চরমপন্থার বিরুদ্ধে লড়াই বলে দাবি করেছে। প্রতিবেশী আফগানিস্তান থেকে যাতে তাজিকিস্তানে চরমপন্থার বিকাশ ঘটতে না পারে, সে জন্য দেশটির সেক্যুলার সরকার অনেক দিন ধরে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

ধারণা করা হচ্ছে, শিগগিরই প্রেসিডেন্ট এমোমালি রাহমোন এর অনুমোদন দেবেন।