logo

সিঙ্গাপুরে চিরনিদ্রায় মুক্তিযোদ্ধা মুন্সী শহিদুজ্জামান

সিঙ্গাপুরে চিরনিদ্রায় মুক্তিযোদ্ধা মুন্সী শহিদুজ্জামান

সিঙ্গাপুর সিটি, ২১ জানুয়ারী- সিঙ্গাপুরের বাংলাদেশ বিজনেস চেম্বারের (বিডিচ্যাম) প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ও বীর মুক্তিযুদ্ধা মুন্সী শহীদুজ্জামান চলে গেছেন চিরনিদ্রার দেশে।

বুধবার (২০ জানুয়ারি) স্থানীয় সময় বিকাল চারটায় সিঙ্গাপুরের সেরাঙ্গুন মোস্তফা প্লাজাসংলগ্ন অন্গুলিয়া মসজিদে তার জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় তার কফিন বাংলাদেশের জাতীয় পতাকায় আবৃত ছিল। তার কফিনে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো শেষে সাড়ে চারটার দিকে চুয়া চুকাং সিমিট্রিতে তাকে চিরনিদ্রায় শায়িত করা হয়।

জানাজায় বাংলাদেশ হাইকমিশনার মাহবুবুজ্জামান, বিডিচ্যামের নেতারা, ব্যবসায়ী, চাকরিজীবী, পরিবারের সদস্যরাসহ বাংলাদেশী প্রবাসীরা জানাজায় অংশ নেন।

১৯ জানুয়ারি সকালে মালয়েশিয়ার রাজধানী কুয়ালালামপুরের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান এই বীর মুক্তিযোদ্ধা।

মুন্সী শহিদুজ্জামান গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার ভাটিয়াপাড়া গ্রামে সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াকালীন ছাত্রলীগের অন্যতম নেতা ছিলেন। একাত্তরে সাতক্ষীরা অঞ্চলে মুক্তিযুদ্ধে  অংশ নেন।  স্বাধীনতাযুদ্ধের পরে আওয়ামী লীগের সঙ্গে সম্পৃক্ত হন। বঙ্গবন্ধু মারা যাওয়ার পর ক্রান্তিলগ্নে গোপালগঞ্জ আওয়ামী লীগকে তিনি ও তার পরিবার সংগঠিত করে। মুন্সী শহিদুজ্জামান  স্ত্রী, দুই ছেলে ও বহু আত্মীয়স্বজন রেখে গেছেন।


মুক্তিযোদ্ধা মুন্সী শহীদুজ্জামানের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেন সিঙ্গাপুরের বাংলাদেশ হাইকমিশনার মাহবুব উজ জামান। তিনি বলেন, “তার এই আকস্মিক মৃত্যুতে আমরা সবাই মর্মাহত। এই মুক্তিযোদ্ধার শোকার্ত পরিবারের প্রতি রইল আমাদের সমবেদনা।”

আরও শোক জানিয়েছেন বিডিচ্যামের সহসভাপতি ও সিঙ্গাপুর বাংলাদেশ সোসাইটির সভাপতি মো. সাহিদুজ্জামান, সিঙ্গাপুরের বাংলা পত্রিকা ‘বাংলার কণ্ঠ’র সম্পাদক এ কে এম মহাসিন, বিডিচ্যামের সাধারণ সম্পাদক মো. নাসিরুল ইসলাম মনি ও মো. আজহারুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম জনি, সিঙ্গাপুর বাংলাদেশ সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হক, সামাজকল্যাণ সম্পাদক তাজুল ইসলাম প্রমুখ।

সিঙ্গাপুর আওয়ামী লীগের সভাপতি কাজী শিহাব উদ্দিন লিটন ও সাধারণ সম্পাদক রফিক আহম্মেদ এক শোকবার্তায় সিঙ্গাপুর আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে শোকশন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।