logo

‘বাংলাদেশ করছে, ধনী দেশগুলোকেও দায়িত্ব পালন করতে হবে’

‘বাংলাদেশ করছে, ধনী দেশগুলোকেও দায়িত্ব পালন করতে হবে’

ঢাকা, ২১ জানুয়ারি- বৈশ্বিক উষ্ণায়ন রোধে বাংলাদেশের জোর তৎপরতার কথা জানিয়ে এক্ষেত্রে ধনী দেশগুলোকে ‘যথাযথ’ দায়িত্ব পালনের আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

যুক্তরাষ্ট্রের একটি সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত এক নিবন্ধে তিনি বলেন, “বাংলাদেশ স্বাধীনতা, গণতন্ত্র, নারীর অধিকারের জন্য এবং সন্ত্রাস ও চরমপন্থার বিরুদ্ধে নিজের মতো করে লড়াই করেছে।  কিন্তু জলবায়ু পরিবর্তন এমন একটি বিষয়, যার বিরুদ্ধে আমরা একা লড়াই করে জিততে পারি না।”

জলবায়ু পরিবর্তন সংক্রান্ত নীতি-নির্ধারণে নেতৃত্বের জন্য ২০১৫ সালে জাতিসংঘের ‘চ্যাম্পিয়নস অফ দি আর্থ’ পুরস্কার পেয়েছেন শেখ হাসিনা।

গ্লোবাল ক্লাইমেট রিস্ক ইনডেস্ক অনুযায়ী জলবায়ু পরিবর্তনের সর্বোচ্চ ঝুঁকিতে থাকা ১০টি দেশের মধ্যে রয়েছে বাংলাদেশ।

ইউএস নিউজ অ্যান্ড ওয়ার্ল্ড রিপোর্ট- এ প্রকাশিত ‘ক্লাইমেট চেঞ্জ আফটার প্যারিস’ শিরোনামে লেখা নিবন্ধে  প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, জলবায়ু পরিবর্তন বাংলাদেশের জন্য একটা ‘বিরাট হুমকি’।

এজন্য বাংলাদেশ জলবায়ু পরিবর্তন এবং নাগরিকের সুরক্ষার সংগ্রামকে ‘প্রতিরক্ষা, নিরাপত্তা ও অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির পর্যায়ের জাতীয় অগ্রাধিকারে’ নিয়েছে। 

“এ কারণে গত মাসে প্যারিসে জাতিসংঘ জলবায়ু সম্মেলনে যে অগ্রগতি এসেছে তাতে পুরোপুরি সন্তুষ্ট না হলেও বাংলাদেশ উৎসাহিত হয়েছে।”

শেখ হাসিনা বলেন, বৈশ্বিক উষ্ণায়নে ভূমিকা রাখা কার্বন নিঃসরণ কমাতে মতৈক্য অপরিহার্য ছিল।

“বিশ্বের ধনী দেশগুলোকে অবশ্যই দরিদ্রদের নতুন প্রযুক্তির জন্য অর্থ ব্যয়ে সহযোগিতা দিতে হবে, যাতে নবায়নযোগ্য উৎস থেকে আরও জ্বালানি উৎপাদনের সক্ষমতা তৈরির পাশাপাশি জ্বালানি সাশ্রয়ী যন্ত্রপাতি ব্যবহারের মাধ্যমে জ্বালানি খরচ কমাতে পারে।”

এছাড়া আধুনিক ও কম খরচের দুর্যোগ ঝুঁকি প্রশমন ও বিরূপ পরিস্থিতি সামলানোর পদ্ধতি বের করতে গবেষণায় সহায়তাও ধনী দেশগুলো থেকে আসা উচিত বলে মন্তব্য করেন তিনি।

“এই বৈশ্বিক হুমকির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ছোট, বড় সব দেশকে এক জায়গায় আসতে হবে,” বলেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী।

জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব মোকাবেলায় বাংলাদেশ সরকারের নেওয়া বিভিন্ন উদ্যোগ তুলে ধরেন শেখ হাসিনা।

“বাংলাদেশ তার দায়িত্ব পালন করবে। আমরা আশা করি বিশ্বের ধনী দেশগুলোও তাদের কাজটা করবে,” বলেন তিনি।