logo

পাশে দাঁড়ালেন আমির, আপ্লুত সানি বললেন ‘থ্যাঙ্ক ইউ’

পাশে দাঁড়ালেন আমির, আপ্লুত সানি বললেন ‘থ্যাঙ্ক ইউ’

তাঁর বিতর্কিত সাক্ষাত্কার নিয়ে বলিউডের একটা বড় অংশ তাঁকে মঙ্গলবারই সমর্থন করেছিল। এ বার সানির সমর্থনে এগিয়ে এলেন খোদ আমির খান। টুইটারে আমির জানিয়েছেন, ‘‘সানির সঙ্গে কাজ করতে পারলে আমার ভাল লাগবে। ওঁর অতীত নিয়ে আমার কোনও সমস্যা নেই। আমি মনে করি ওই সাক্ষাত্কার সানি খুব দক্ষতার সঙ্গে সামলেছেন। উনি যা বলেছেন পারলে আমিও ওই সাংবাদিকের সম্বন্ধে একই কথা বলতাম।’’ এর পরই টুইট করে আমিরকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন সানি। আমিরের এই সমর্থনে তিনি আপ্লুত। আমিরের কারণে তাঁর গোটা বছরটাই পাল্টে গেল বলে লিখেছেন সানি।

ওই সাক্ষাত্কারে সানিকে প্রশ্ন করা হয়, ‘‘পর্ন তারকা হিসেবে আপনার অতীত কি আপনাকে তাড়া করে বেড়ায়? এ সব জানার পরেও আমির খানের মতো তারকা আপনার সঙ্গে কাজ করবেন?’’ তার উত্তরে যথেষ্ট সংযত ছিলেন সানি। তিনি বলেন, ‘‘যা করেছি বেশ করেছি। আমি ও সব নিয়ে ভাবিই না। হয়তো আমির কাজ করবেন না। তবে তিনিই এটা ভাল বলতে পারবেন। হয়তো কোনও একদিন বড় মাপের কোনও স্টারের সঙ্গে আমি কাজ করব। সেই মুহূর্তে কাজটাই আমার কাছে গুরুত্বপূর্ণ। আমার অতীত নয়। তাই আমার পর্ন ছবিতে অভিনয় আমার এখনকার জীবনে কোনও প্রভাব ফেলে না।’’


সানির সেই টুইট

সাক্ষাত্কার চলাকালীন অনস্ক্রিন তিনি ভেঙে পড়েননি ঠিকই। কিন্তু ক্যামেরা বন্ধ হতেই কেঁদে ফেললেন সানি লিওন। সানির স্বামী ড্যানিয়েল ওয়েবার ঘটনার পর মিডিয়ার কাছে প্রকাশ করেছেন এই তথ্য।  ওই সাক্ষাত্কার প্রচারিত হওয়ার পরই বিভিন্ন মহল থেকে প্রশ্ন উঠছে সত্যিই কি এ ভাবে কারও অতীত নিয়ে খোঁচা দেওয়া সাংবাদমাধ্যমের কাজ? ক্যামেরার সামনে সানি লিওনকে বিব্রত করাই কি মূল উদ্দেশ্য ছিল? এর সঠিক উত্তর না মিললেও সানির পাশেই দাঁড়িয়ে ওই সাংবাদিককেই কাঠগড়ায় তুলেছেন বলিউডের একটা বড় অংশ। এ বার আমিরও এসে দাঁড়ালেন সানির পাশেই।