logo

বদলে গেলো ওয়ালারদের ড্রেসিংরুমের চেহারা

শান্ত মাহমুদ


বদলে গেলো ওয়ালারদের ড্রেসিংরুমের চেহারা

খুলনা, ২১ জানুয়ারি- আফসোস বা আক্ষেপ যাই হোক, সবই ছিল জিম্বাবুয়ের। টি-টোয়েন্টি লড়াইয়ে আগের দুবার ১৮০ পেরিয়েও জয়ের সাথে মোলাকাত হয়নি। ২০০ তুলেও কিউই ব্যাটিং তান্ডবে ম্যাচ হারতে হয়েছিল। এরপর ১৯০ করার অভিজ্ঞতা আরো করুণ। এতোবড় স্কোর নিয়েও পুচকে আফগানিস্তানের কাছে হারতে হয়েছিল তাদেরকে।

তাই বাংলাদেশের সাথে তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতে ১৮৭ তুলেও হয়তো নির্ভার থাকতে পারেনি সফরকারীরা। এমনিতেই সিরিজে ২-০ তে পিছিয়ে। ছিল বাংলাদেশের দারুণ পারফরম্যান্সের চোখ রাঙ্গানিও। সব মিলিয়ে বড় সংগ্রহও স্বস্তি দিতে পারেনি মাসাকাদজাদের। কিন্তু ম্যাচ শেষে হিসাবটা ভিন্ন। জিম্বাবুয়ের ঝুলিতেই ৩১ রানের জয়। এই জয়ে সিরিজে টিকে রইলো সফরকারিরা।

জয়ের প্রধান নায়ক ম্যালকম ওয়ালার। ব্যাট হাতে বাংলাদেশ বোলারদের ওপর টর্নেডো বইয়ে দিয়েছিলেন জিম্বাবুয়ের ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান। ম্যাচসেরা ওয়ালার মাত্র ২৩ বলে খেলেছেন ৪৯ রানের ক্ষেপাটে ইনিংস। যেন মিরপুরের সেই ম্যাচের কথাই মনে করিয়ে দিলেন ওয়ালার। নভেম্বরে এই ওয়ালারের ব্যাটেই বাংলাদেশকে হারিয়েছিল জিম্বাবুয়ে।

আবারো বাংলাদেশ, আবারো ওয়ালার। তবে বাংলাদেশকে হারানোর গর্বের চেয়ে জয়ের তৃপ্তিই বেশি কাজ করছে তাদের মধ্যে। জিততেই যে ভুলতে বসেছিল তারা। ওয়ালার বলছেন, ‘খুবই ভালো লাগছে, ছেলেরা অনেক খুশি। ড্রেসিং রুমে অনেক হাসিমুখ দেখা যাচ্ছে। অনেক মজা হচ্ছে। জিততে পেরে ভালো লাগছে। গত কয়েক সপ্তাহে এমন কিছু ম্যাচ ছিল যা আমাদের জেতা উচিত ছিল কিন্তু আমরা শেষে গিয়ে পারিনি। আজ পেরে দারুণ লাগছে।’

আর এই জয়টিই পাল্টে দিয়েছে জিম্বাবুয়েকে। তাই তো এখন সিরিজ ড্রয়ের স্বপ্ন দেখছে ওয়ালাররা, ‘সিরিজ ২-১ হওয়ায় পরের ম্যাচটি খুব গুরুত্বপূর্ণ। আজকে যা করেছি, পরের ম্যাচে মাঠে নেমে আমরা ঠিক সেগুলোই করার চেষ্টা করব। সবকিছু ঠিকঠাকভাবে চেষ্টা করব। আশা করি আমরা সিরিজ ড্র করতে পারব।’