logo

ইরানে ‘ওয়াইন’ শব্দের ব্যবহার নিষিদ্ধ

ইরানে ‘ওয়াইন’ শব্দের ব্যবহার নিষিদ্ধ

তেহরান, ২১ জানুয়ারি- বই-পুস্তকে ‘ওয়াইন’ শব্দের ব্যবহার নিষিদ্ধ করেছে ইরান। সেই সাথে বেশকিছু বিদেশি প্রাণির নাম এবং বিদেশি কয়েকজন রাষ্ট্রপতির নামও নিষিদ্ধ করেছে দেশটি। উল্লেখ্য, ওয়াইন হচ্ছে একপ্রকার মদ।

ইরানে পশ্চিমা সংস্কৃতির আগ্রাসন ঠেকাতেই এ পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে বলে দেশটির সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়েছে। 

মন্ত্রণালয়ের প্রকাশনা বিভাগের প্রধান মোহাম্মদ সেলজি বলেন, ‘যখনই কোনো নতুন বই আমাদের কাছে নিবন্ধন করা হয়, আমাদের কর্মচারিরা প্রথমে তার প্রতিটি পৃষ্ঠা পুনানুপুঙ্খভাবে পড়ে দেখে ইসলামি বিপ্লবের মূলনীতির সাথে তা সামঞ্জস্যপূর্ণ কি না। তারা পশ্চিমা সংস্কৃতির আগ্রাসনমূলক কিছু থাকলে বাদ দেয় এবং মোহাম্মদ (স.) এর প্রতি অপমানজনক কিছু থাকলে তাও বাদ দেয়।’

ওয়াইনের মতো শব্দ এবং বিদেশি কিছু প্রাণি, সেই সাথে কয়েকজন বিদেশি কয়েকজন প্রেসিডেন্টের নামও নতুন নীতিমালার আওতায় বাদ দেয়া হয়েছে বলেও জানান সেলজি। 

ব্রিটিশ গণমাধ্যম দ্য টেলিগ্রাফকে তিনি জানান, এসব নাম-সংবলিত কোনো বই বাজারেও রাখতে দেয়া হবে না। বই প্রকাশে ধর্মীয় নেতাদের দৃষ্টিভঙ্গি অবশ্যই বিবেচনায় রাখতে হবে। 

ইরানের সংস্কৃতিমন্ত্রী আলি জান্নাতির ১৩ জানুয়ারি সাংবাদিকদের জানান, ইরানের সরকার দেশটির শিক্ষকেন্দ্রগুলোতে মত প্রকাশের স্বাধীনতা অব্যহত রাখতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।