logo

অমুসলিম নারীদের ধর্ষণ জায়েজ!

অমুসলিম নারীদের ধর্ষণ জায়েজ!

কায়রো, ১৮ জানুয়ারী- অমুসলিম নারীদের ধর্ষণ করা মুসলিমদের জন্য বৈধ বলে মন্তব্য করেছেন মিসরের আল আজহার বিশ্ববিদ্যালয়ের এক নারী অধ্যাপক। এই মন্তব্যের পর বিশ্বজুড়ে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছেন সুয়াদ সালেহ নামের ওই নারী অধ্যাপক।

সম্প্রতি টেলিভিশনে দেয়া সাক্ষাতকারে তিনি বলেন, আল্লাহ মুসলমানদের অমুসলিম নারীদের ধর্ষণের অনুমতি দিয়েছেন।

তিনি বলেন, কোনো মুসলিম পুরুষ চাইলে দাষীদের সঙ্গেও যৌন সম্পর্ক করতে পারবে। এটা বৈধ। মুসলিমদের সঙ্গে শত্রুপক্ষের যুদ্ধের সময় মুসলিম পুরুষরা অমুসলিম নারীদের ধর্ষণ করতে পারবে।

এ সময় তিনি ইসরায়েলের প্রসঙ্গ উল্লেখ করে বলেন, মুসলিম পুরুষরা ইসরায়েলের নারীদের ধর্ষণ করলে সেটি অবৈধ হবে না। মুসলিম পুরুষরা যাতে ইসরায়েলি নারীদের ধর্ষণ করে সেজন্য উৎসাহও দেন এই নারী অধ্যাপক।

সুয়াদ সালেহ বলেন, যুদ্ধবন্দী নারীরা মুসলিম সেনাপতিদের সম্পত্তি। সেনাপতিরা নিজেদের স্ত্রীর সঙ্গে যেভাবে যৌন সম্পর্ক করে ঠিক একইভাবে এই বন্দী নারীদের সঙ্গেও করতে পারবে।

মিসরের নামকরা বিশ্ববিদ্যালয় অধ্যাপকের এই সাক্ষাতকার প্রকাশের পর ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়েছে। অনেকেই বলছেন, ইসলামের বিরুদ্ধে প্রচারণা চালাতেই এসব মনগড়া মন্তব্য করেছেন সুয়াদ সালেহ। খবর জি নিউজ।