logo

দূষণের হাত থেকে বাঁচান ত্বককে

দূষণের হাত থেকে বাঁচান ত্বককে

রোজকার ধূলোবালি আর রোদ মিলে আপনার ত্বকের যতটা ক্ষতি করছে সেটা রক্ষা করতে রক্ষাকবচ তৈরি করতে হবে আপনাকেই। সেজন্য অবশ্য আগে নিজের বদভ্যাসগুলো ত্যাগ করতে হবে। ক্যাফেইন বা ধূমপান হয়তো ছেড়ে দিলেন কিন্তু বাতাসে যে পরিমাণ টক্সিন থাকে সেসব থেকে রক্ষা পেতে কি করবেন?

সপ্তাহান্তে একদিনের ত্বক পরিস্কারের রুটিনই আপনার জন্য যথেষ্ট। প্রতিদিন ত্বক পরিচ্ছন্ন করতে না পারলেও সপ্তাহে একটা দিন নিজের জন্য রাখতে ভুলবেন না।


বাইরের রোদ থেকে তো বটেই ধুলোও আপনার ত্বকের উপর তৈরি করে ক্ষতির আস্তরন। দূষণ কিন্তু প্রথমে ত্বকের নিরাপত্তারেখাগুলোকে ধ্বংস করে। তারপর গিয়ে সেটা ত্বকের ক্ষতি করে। তাই প্রথমেই দেখতে হবে ত্বক ঠিকঠাক আর্দ্র আছে কিনা। তা না হলে ত্বক শুষ্ক ও কঠিন হয়ে যাবে। সেজন্য অবশ্য সপ্তাহান্তে একবার হলেও নিজের যত্ন নিতে পারেন।

দূষণের মধ্যে থাকলে একসময় না একসময় ত্বক প্রচণ্ড বয়স্ক দেখানো শুরু করবে। এর আগে কপাল ও গালে বয়সের ছাপের জন্য শুধুমাত্র সূর্যরশ্নিকেই দায়ী করা হতো। এখন বিজ্ঞানীরা বলছে এর জন্য দায়ী দূষণও। হয়তো এসপিএফযুক্ত সানস্ক্রিন এই ক্ষতির হাত থেকে আপনাকে পুরোপুরি বাঁচাতে পারবে না। কিন্তু কিছুটাতো রক্ষা করবে।

ত্বক পরিস্কারে খানিকটা বাড়তি নজর দিন। সাধারণভাবে ত্বকতো পরিস্কার করেনই সপ্তাহে একটা দিন ভালোভাবে ত্বক পরিস্কার করুন।


মরাকোষ দূর করতেও ভুলবেন না। হালকা কিছু স্ক্রাব পাওয়া যায় সেসব দিয়ে সপ্তাহে অন্তত ২বার ত্বক পরিস্কার করুন। ভেতর থেকে ময়লা পরিষ্কার হয়ে যাবে।

মধু আর শসার মিশ্রণের সঙ্গে একটুখানি মুলতানি মাটি দিয়ে ত্বক পরিস্কার করুন। দেখবেন ত্বকে জমে থাকা অনেক ময়লা দূর হয়ে যাবে নিমেষে।

সঙ্গে প্রচুর পানি আর ভিটামিন সি খেতে ভুলবেন না।