logo

জাকার্তায় হামলাকারীরা শনাক্ত, দাবি পুলিশের

জাকার্তায় হামলাকারীরা শনাক্ত, দাবি পুলিশের

জাকার্তা, ১৫ জানুয়ারী- ইন্দোনেশিয়ার রাজধানী জাকার্তায় হামলাকারী পাঁচজনের মধ্যে চারজনকে শনাক্ত করেছে পুলিশ। এদের মধ্যে দুজন জঙ্গি হিসেবে আগেই অভিযুক্ত হয়েছিলেন। বিবিসি অনলাইনের খবরে এসব তথ্য জানানো হয়।

জঙ্গি হামলায় গতকাল বৃহস্পতিবার জাকার্তার ছয়টি স্থানে বিস্ফোরণ ও গোলাগুলিতে পাঁচ হামলাকারীসহ অন্তত সাতজন নিহত হন। নিহতদের মধ্যে একজন ইন্দোনেশিয়ার ও একজন কানাডার নাগরিক ছিলেন। মধ্যপ্রাচ্যে সক্রিয় জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট (আইএস) আনুষ্ঠানিকভাবে এ হামলার দায় স্বীকার করেছে।

খবরে বলা হয়েছে, নিহত হামলাকারীদের মধ্যে একজন হলেন আফিফ সুনাকিম, যাকে হামলার সময় বন্দুক বহন করতে দেখা গেছে। জঙ্গি ক্যাম্পে যোগ দেওয়ার জন্য তাঁকে একবার সাত বছরের জেল দেওয়া হয়েছিল।

এদিকে জার্কাতায় ওই হামলার ঘটনায় আজ শুক্রবার তিনজনকে আটক করা হয়েছে। তবে তারা ঘটনার সঙ্গে জড়িত কি না তা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

ইন্দোনেশিয়ার পুলিশ জানিয়েছে, গতকাল নিরাপত্তাবাহিনীর সদস্যদের সঙ্গে হামলাকারীদের ঘণ্টাব্যাপী বন্দুকযুদ্ধ হয়। দুজন হামলাকারী আত্মঘাতী হামলায় নিহত হওয়ার পর হামলা শেষ হয়। আর বাকি তিনজন নিহত হন পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে। হামলার পর দেশটিতে সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

দেশটির পুলিশ প্রধান জেনারেল বেড্রোডিন হাইতি বলেন, সুনাকিমসহ আরেকজন হামলাকারী আগেই বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের কারণে দোষী সাব্যস্ত হয়েছিলেন।
জাকার্তার পুলিশ প্রধান ইন্সপেক্টর জেনারেল টিটো কারনাভিয়ান বলেন, এই হামলার পেছনে জড়িত সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

অ্যান্টন চার্লিয়ান নামের পুলিশের একজন মুখপাত্র বলেন, নিহতদের মধ্যে দুই হামলাকারী এর আগেও একই ধরনের হামলার সঙ্গে জড়িত ছিল।

এর আগে আইএসের সঙ্গে সিরিয়াতে যুদ্ধে অংশগ্রহণকারী বাহরুম নাইম নামের একজন ইন্দোনেশিয়ানকে এই হামলার অন্যতম সমন্বয়কারী হিসেবে সন্দেহ করা হয়েছে।
জাকার্তার পুলিশ প্রধান কারনাভিয়ান বলেন, নাইমের উদ্দেশ্য ছিল দক্ষিণ পূর্ব এশিয়াতে আইএসের বিভিন্ন সমর্থক গোষ্ঠীকে ঐক্যবদ্ধ করা।