logo

পাকিস্তানে আত্মঘাতী বোমা হামলায় নিহত ১৪

পাকিস্তানে আত্মঘাতী বোমা হামলায় নিহত ১৪

কোয়েটা, ১৩ জানুয়ারী- পাকিস্তানের পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর কোয়েটায় একটি পোলিও কেন্দ্রের কাছে সম্ভাব্য আত্মঘাতী বোমা হামলায় অন্ততপক্ষে ১৪জন নিহত হয়েছেন।

বুধবারের এই হামলায় নিহতদের বেশিরভাগই পুলিশ সদস্য। পোলিওকর্মীদের নিরাপত্তায় এই পুলিশ সদস্যরা নিয়োজিত ছিলেন।

পুলিশ জানিয়েছে, নিহতদের মধ্যে অন্ততপক্ষে ১২জন পুলিশ সদস্য, একজন আধা-সামরিক বাহিনীর কর্মকর্তা এবং একজন সাধারণ ব্যক্তি রয়েছেন।

এই হামলায় ২০ব্যক্তি আহত হয়েছেন।

পুলিশ বহনকারী একটি ভ্যান পোলিও কেন্দ্রের কাছে এসে দাঁড়ানো মাত্রই বিস্ফোরণটি ঘটে। এতে ভ্যানটি বিধ্বস্ত হয়।

বেলুচিস্তানের পুলিশ প্রধান আহসান মেহবুব রয়টার্সকে বলেছেন, “এটি একটি আত্মঘাতী বিস্ফোরণ। আমরা ঘটনাস্থল থেকে নমুনা সংগ্রহ করেছি।”

তিনি আরও বলেন, “পোলিও কর্মসূচির দলকে নিরাপত্তা দেওয়ার জন্য পুলিশের দলটি সেখানে উপস্থিত হয়েছি।”

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, পাকিস্তান ও প্রতিবেশি আফগানিস্তানই বিশ্বের দুটি মাত্র দেশ যেখানে পোলিও রোগটি বৃহৎ পরিসরে টিকে রয়েছে।

পাকিস্তানে পোলিও রোগ নির্মূলের কর্মসূচিতে নিয়োজিত কর্মীদল প্রায়ই তালেবান ও অন্যান্য সন্ত্রাসী-জঙ্গি গোষ্ঠীর হামলার শিকার হয়। জঙ্গি ওই গোষ্ঠীগুলোর দাবি, এই কর্মসূচির আড়ালে পশ্চিমা গুপ্তচররা তাদের কাজকর্ম চালিয়ে যাচ্ছে।

পাশাপাশি, যে ভ্যাকসিনগুলো দেওয়া হচ্ছে সেগুলো শিশুদের ভবিষ্যত প্রজনন ক্ষমতা নষ্ট করার জন্য তৈরি বলেও সন্ত্রাসী ওই গোষ্ঠীগুলো দাবি করছে।

পোলিও কর্মসূচির ফলে সাম্প্রতিক সময় পাকিস্তানে কিছু সাফল্য দেখা গেছে। গেল বছর দেশটিতে শিশু পঙ্গুত্বের হার কমেছে।

কিন্তু পোলিওকর্মীদের উপর ক্রমাগত হামলা-সহিংসতার কারণে কর্মসূচির লক্ষ্য অর্জন ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।