logo

আরও ৬ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় অনুমোদন

আরও ৬ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় অনুমোদন

ঢাকা, ১০ জানুয়ারী- বর্তমানগুলোর মান নিয়ে প্রশ্নের মধ্যে আরও ছয়টি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় অনুমোদন দিয়েছে সরকার। এনিয়ে বাংলাদেশে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৮৯টিতে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (বিশ্ববিদ্যালয়) হেলাল উদ্দিন রোববার জানান, সম্প্রতি এসব বিশ্ববিদ্যালয় অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

ঢাকায় দুটি, চট্টগ্রাম, খুলনা, কুষ্টিয়া ও মানিকগঞ্জে একটি করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার অনুমোদন দিয়ে আদেশ জারি করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

ঢাকায় বাড্ডায় প্রতিষ্ঠার জন্য অনুমোদন পেয়েছে ‘দি ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব স্কলার’। এ বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্যোক্তা অধ্যাপক মোহাম্মদ জামিল হাবিব।

ঢাকার তেজগাঁওয়ে স্থাপিত হবে ‘কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ’। এর উদ্যোক্তা হিসেবে চৌধুরী নাফিজ সরাফতের নাম রয়েছে।

মানিকগঞ্জে প্রতিষ্ঠার জন্য অনুমোদন পেয়েছে ‘এন পি আই ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ’। যৌথভাবে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্যোক্তা হিসেবে রয়েছেন সাবেক ছাত্রলীগ নেতা শামসুর রহমান ও ইসহাক আলী খান পান্না।

খুলনায় প্রতিষ্ঠার অনুমোদন পেয়েছে ‘নর্দান ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস অ্যান্ড টেকনোলজি’। এ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা মো. আনছার আলী।

‘রবীন্দ্র মৈত্রী বিশ্ববিদ্যালয়’ কুষ্টিয়ায় প্রতিষ্ঠার অনুমোদন পেয়েছেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন অনুষদের সাবেক ডিন মোহাম্মদ জহুরুল ইসলাম।

চট্টগ্রামে স্থাপনের জন্য ‘ইউনিভার্সিটি অব ক্রিয়েটিভ টেকনোলজি’ অনুমোদন দিয়েছে সরকার। এ বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্যোক্তা মুহাম্মদ ওসমান।

গত ৫ জানুয়ারি এক অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ জানান, সরকারের বেঁধে দেওয়া শর্ত পূরণ না করে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো বেশি দিন চলতে পারবে না।

যেসব বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালনার সাত বছর পার করেছে তাদের গত ১৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে নিজস্ব ক্যাম্পাসে স্থানান্তরে শিক্ষা মন্ত্রণালয় চতুর্থ দফায় সময় বেঁধে দেয়।

তবে সরকারের এই নির্দেশনা মেনে সাত বছর ধরে ক্যাম্পাস পরিচালনা করছে এমন ৫২টি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে ১৭টি সম্পূর্ণভাবে নিজস্ব ক্যাম্পাসে গেছে, ২৭টি আংশিক স্থানান্তর করেছে।

অতিরিক্ত সচিব হেলাল উদ্দিন জানান, নতুন অনুমোদন পাওয়া বিশ্ববিদ্যালয়গুলো বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন থেকে বিভাগ ও অনুষদ গঠন ছাড়াও পাঠদানের অনুমোদন নেবে।

“এরপর শিক্ষক নিয়োগ দিয়ে কার্যক্রম শুরু করবে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো। সব প্রক্রিয়া শেষ করে তিন মাসের মধ্যে শিক্ষা কার্যক্রম শুরু করতে হবে।”

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে অনুমোদনের জন্য আরও ১১০টি আবেদন প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও হেলাল উদ্দিন।

শর্তানুযায়ী, অনুমোদন পাওয়া বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর কমপক্ষে ২৫ হাজার বর্গফুট আয়তনের নিজস্ব বা ভাড়াকৃত ভবন থাকতে হবে।

এছাড়া কমপক্ষে তিনটি অনুষদের অধীতে ছয়টি বিভাগ খুলতে হবে নতুন বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে।