logo

আরব আর ইহুদীদের যে চুম্বন দৃশ্য নিয়ে ইসরায়েলে তোলপাড়

আরব আর ইহুদীদের যে চুম্বন দৃশ্য নিয়ে ইসরায়েলে তোলপাড়

প্রকাশিত উপন্যাস হাতে লেখক ডরিট রাবিনয়ান। ইহুদী নারী এবং ফিলিস্তিনি পুরুষের প্রেম নিয়ে এর কাহিনী

জেরুসালেম, ০৯ জানুয়ারি- ইহুদী আর ফিলিস্তিনিদের যে চুম্বন দৃশ্যের ভিডিও নিয়ে ইসরায়েলে তোলপাড় চলছে, তা উধাও হয়ে গেছে ফেসবুক থেকে। লন্ডনের 'দ্য ইন্ডিপেনডেন্ট' পত্রিকা জানাচ্ছে, ইসরায়েলে ঘৃণা আর বৈষম্যের বিরুদ্ধে বিরুদ্ধে প্রচারণার অংশ হিসেবে এই ভিডিও তৈরি করে ‘টাইম আউট’ ম্যাগাজিনের তেল আবিব সংস্করণ।

ভিডিওতে মোট ছয় যুগলকে চুমু খেতে দেখা যায়। এদের মধ্যে ইহুদী-আরব নারী-পুরুষ থেকে শুরু করে সমকামী পুরুষ, সব ধরণের যুগলই রয়েছে। এক ইহুদী নারী এবং ফিলিস্তিনি পুরুষের প্রেমের কাহিনী নিয়ে লেখা একটি উপন্যাস সম্প্রতি ইসরায়েলের শিক্ষা মন্ত্রণালয় নিষিদ্ধ করে। তারই পাল্টা প্রতিক্রিয়া হিসেবে ‘টাইম আউট’ ম্যাগাজিন এই ভিডিওটি তৈরি করেছিল।

ইসরায়েলি লেখক ডরিট রাবিনিয়ানের লেখা উপন্যাসটি শিক্ষা মন্ত্রণালয় এই যুক্তিতে নিষিদ্ধ করে যে, এটি ইসরায়েলিদের ‘স্বতন্ত্র’ পরিচয়ের জন্য হুমকি। কিন্তু ‘টাইম আউট’ ম্যাগাজিন এর জবাবে এই ভিডিও প্রকাশ করে বলেছে, ‘ আমরা বিশ্বাস করি মানুষ প্রথমত মানুষ, তারপর আসে তার ধর্ম বা জাতিগত পরিচয়। প্রেমকে অনেক সময় কৃত্রিম বলে মনে করা হয়। কিন্তু এটা একটা ভুল। এর চেয়ে জটিল আর কোন অনুভূতি হতে পারে না।’

মোট ছয়টি যুগলের চুম্বন দৃশ্য রেকর্ড করে টাইম আউট ম্যাগাজিন। এদের অনেকের মধ্যে এই চুম্বন দৃশ্যের আগে দেখা পর্যন্ত হয়নি। ভিডিতে তাদের চুম্বন দৃশ্যের পর পর্দায় ভেসে উঠে ইংরেজী, হিব্রু এবং আরবীতে লেখা এই শ্লোগান: ‘ইহুদী এবং আরবরা পরস্পরের শত্রু হতে অস্বীকৃতি জানাচ্ছে’।

ভিডিওটি আপলোড করার পর একদিনেই সেটি একলক্ষ বার দেখা হয়েছে। কিন্তু তারপরই এটি ফেসবুক থেকে উধাও হয়ে যায়। টাইম আউট ম্যাগাজিন সন্দেহ করছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষই হয়তো চাপে পড়ে এটি সরিয়ে নিয়েছে। কিন্তু ফেসবুক কর্তৃপক্ষ তা অস্বীকার করছে।

সূত্র: বিবিসি