logo

জার্মানিতে হিটলারের ‘মেইন কাম্ফ’ বিক্রি শুরু

জার্মানিতে হিটলারের ‘মেইন কাম্ফ’ বিক্রি শুরু

বার্লিন, ০৯ জানুয়ারি- খোদ জার্মানিতেও বোধ হয় অ্যাডলফ হিটলারের লেখা বই ‘মেইন কাম্ফ’ পুনর্মুদ্রণ করার মত নীতিগত নিষেধাজ্ঞা আর কিছু নেই। কিন্তু মিউনিকের ইতিহাসবিদরা এ বিষয়ে একমত নন। ইতিহাসের দৃষ্টিকোণ তারা মনে করেন থেকে এই বইয়ের বাজারজাত করা এবং পড়ার প্রয়োজনীয়তা রয়েছে।     

জার্মানির ইন্সিটিউট অব কনটেম্পোরারি হিস্টোরি এই নিষ্ঠুর গণহত্যাকারী স্বৈরশাসক হিটলারের লেখা বইটি আবার নতুন করে ছেপেছেন এবং শুক্রবার থেকে বিক্রি করতে শুরু করেছেন। বইটির দাম বাংলা টাকায় প্রায় ৫ হাজার ৪০ টাকা। 

ইন্সিটিউট থেকে জানানো হয়, এবারের সংস্করণে কিছু পরিবর্তন আনা হয়েছে। মূল সংস্করণের অনেক সরাসরি বিষয় এখানে বাদ দেয়া হয়েছে। তারপরেও বইতে মিথ্যাচার, অর্ধ-সত্য এবং ভয়ানক তিরস্কার উপস্তিতি রয়েছে। কারণ বইটিতে এখনো নাৎসি দৃষ্টিভঙ্গির এমন স্পষ্ট বর্ণনা রয়েছে যেটা ২য় বিশ্বযুদ্ধের সময় কোটি কোটি মানুষের হত্যাযজ্ঞের মধ্য দিয়ে ইতি ঘটেছিল।    

২০১৫ সালের ডিসেম্বরের ৩১ তারিখে হিটলারের মৃত্যুর প্রায় ৭০ বছর পরে বইটির কপিরাইটের মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ায় জার্মানিতে আবার বইটিকে পুনর্মুদ্রণ করা সম্ভব হয়েছে। ২য় বিশ্বযুদ্ধ শেষ হওয়ার পরে মিত্ররা এই বইয়ের কপিরাইট পরিবর্তন করে নিয়ে গিয়েছিলেন জার্মান প্রদেশ ব্যাভারিয়ায়। সেখান থেকে বইটির পুনর্মুদ্রণের উপরে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়।   

‘মেইন কাম্ফ’ বইটির মূল সংস্করণ ছিল ৬০০ পৃষ্ঠার এবং প্রচ্ছদে হিটলারের ছবিসহ লাল রঙের উপরে বইয়ের নাম লেখা ছিল। কিন্তু নতুন মুদ্রণে অনেক টীকা যোগ করায় বইয়ের পৃষ্ঠা সংখ্যা দাঁড়িয়েছে প্রায় ২ হাজার। প্রচ্ছদ করা হয়েছে ধূসর বর্ণের।