logo

হাইড্রোজেন বোমা: জাপানজুড়ে বিক্ষোভ, সর্তকতা

এস এম নাদিম মাহমুদ


হাইড্রোজেন বোমা: জাপানজুড়ে বিক্ষোভ, সর্তকতা

হিরোশিমা, ০৮ জানুয়ারী- উত্তর কোরিয়ায় হাইড্রোজেন বোমা পরীক্ষার খবরে বিক্ষোভে ফেটে পড়েছে জাপানিরা। সতর্কতা জারি করেছে সরকার।

তবে জাপানের দপ্তরগুলো বলছে, বুধবারের ওই বোমা বিস্ফোরণের পর দেশটির বাতাসে ক্ষতিকর তেজস্ক্রিয় পদার্থ পাওয়া যায়নি। তারপরও স্থানীয় পর্যায়ে বিভিন্ন জায়গার বাতাস পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে।

সত্তর বছর আগে যে বোমায় দেশটির দুই প্রদেশ বিধ্বস্ত হয়েছিল সেই হিরোশিমার আণবিক বোমায় আহত জীবিতরা বৃহস্পতিবার বিক্ষোভ করেছে।

দুপুরে হিরোশিমা স্মৃতিসৌধের পাদদেশে জড়ো হয়ে তারা এই বিক্ষোভ করে। ‘ পারমাণবিক অস্ত্র বাতিল কর, সর্বত্র শান্তি আন’ শিরোনামের ব্যানারে আয়োজিত এ বিক্ষোভে বক্তব্য দেন মিজুসি কাজুমি, যিনি দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় এ অঞ্চলে পারমাণবিক বোমা হামলার ভুক্তভোগী।

তিনি বলেন, জাপানে আণবিক বোমার করুণ পরিণতি দেখার পরও উত্তর কোরিয়া যে শক্তির মহড়া দিচ্ছে তা বিশ্বশান্তি প্রতিষ্ঠায় হুমকিস্বরুপ।

আমরা যতদিন বেঁচে আছি, ততদিন পারমাণবিক অস্ত্রের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে যাব। আমাদের বিশ্বাস কোরিয়া এই ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি করবে না।

রাজধানী টোকিওতেও বিক্ষোভ করেছে একদল জাপানি। চিয়োডা এলাকায় এ বিক্ষোভে জাপানিদের সঙ্গে যোগ দেয় কোরিয়ান রেসিডেন্ট ইউনিয়ন অব জাপান নামের একটি সংগঠন।

সংগঠনটির দাপ্তরিক প্রধান মাইডান বলেন, আমরা চাই উত্তর কোরিয়া পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহার থেকে বিরত থাকুক। বিশ্বে সংঘাত এড়াতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়গুলোকে একসঙ্গে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে হবে বলে জানান তিনি।

এছাড়াও হাইড্রোজেন বোমা পরীক্ষার খবরে বিক্ষোভ হয়েছে ইশিকাওয়া, মিয়েই, কাগুশিমা, চিবা, ওসাকাসহ বেশ কয়েকটি প্রদেশে।

ওদিকে, ঘটনার একদিন পর বৃহস্পতিবার জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে এবং যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা এক টেলিকনফারেন্সে অংশ নিয়েছেন বলে মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা সাংবাদিকদের জানিয়েছেন। ওই কনফারেন্সে উত্তর কোরিয়ার বিষয়ে দুইদেশ গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

জাপানজুড়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সর্তক অবস্থায় রয়েছে।

বুধবার উত্তর কোরিয়ায় হাইড্রোজেন বোম পরীক্ষার খবর দেশটির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে প্রচারের পর বিশ্বজুড়ে আলোচনা চলছে। বৈঠকও হয়েছে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে।