logo

সৌদিতে বছরের শুরুতেই ৪৯ জনের শিরশ্ছেদ

সৌদিতে বছরের শুরুতেই ৪৯ জনের শিরশ্ছেদ

রিয়াদ, ০৭ জানুয়ারী- আরো এক মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামির শিরশ্ছেদ করেছে সৌদি আরব। এ নিয়ে নতুন বছরের প্রথম সপ্তাহেই দেশটিতে মৃত্যুদন্ড কার্যকরের সংখ্যা ৪৯য়ে গিয়ে দাঁড়াল। সৌদি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় মৃত্যুদন্ড কার্যকর করার এ ঘোষণা দিয়েছে।

সৌদি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, বুধবার তারা খুনের দায়ে মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত আরো এক নাগরিকের শিরশ্ছেদ করেছে। মোহাম্মদ বিন সাফর আল হারিসি নামক একজনকে গুলি করে হত্যার দায়ে দোষী সাব্যস্ত হয়েছিলেন সৌদ বিন মোহাম্মদ আল শালভি। বুধবার দেশের পশ্চিমাঞ্চলীয় তায়েফ নগরীতে তার মৃত্যুদন্ড কার্যকর করা হয়।

এর আগে গত শনিবার ‘সন্ত্রাসবাদের’ জন্য দোষী সাব্যস্ত ৪৭ জনের শিরশ্ছেদ করেছিল সৌদি আরব। এদের মধ্যে আল-কায়েদা সংশ্লিষ্ট বেশ ক’জন জঙ্গি এবং শিয়া ধর্মীয় নেতা শেখ নিমর আল নিমরও ছিলেন। নিমরের মৃত্যুদন্ড নিয়ে তেহরানের সঙ্গে কূটনৈতিক সংঘাত সৃষ্টি হয়েছে সুন্নি অধ্যুষিত দেশ সৌদি আরবের। শেখ নিমরের শিরশ্ছেদের প্রতিবাদে বিক্ষোভকারীরা তেহরানের সৌদি দূতাবাসে আগুন দেয়ার পর রোববার ইরানের সঙ্গে কূটনৈতিক ও বাণিজ্যিক সম্পর্ক ছিন্ন করেছে সৌদি সরকার।

২০১৫ সালে বিভিন্ন অপরাধে ১৫২ জনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছিল সৌদি সরকার। মানবাধিকার-বিষয়ক সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের দেয়া তথ্য মতে, দেশটিতে গত দুই দশকের মধ্যে গতবছরই সবচাইতে বেশি সংখ্যক শিরশ্ছেদের ঘটনা ঘটেছিল। এর আগের বছর অর্থাৎ ২০১৪ সালে মাত্র ৮ জনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছিল। ১৯৯৫ সালে দেশটিতে সর্বোচ্চ ১৯২ জনের শিরশ্ছেদ করা হয়।

অ্যামনেস্টির তথ্য অনুযায়ী, গতবছরে ইরান ও চীনের পর বিশ্বের তৃতীয় মৃত্যুদণ্ড কার্যকরকারী দেশ হচ্ছে সৌদি আরব। খুন, মাদকদ্রব্য পাচার, সশস্ত্র ডাকাতি, ধর্ষণ ও ধর্মত্যাগের মতো অপরাধেও সেখানে শিরশ্ছেদ হয়ে থাকে।