logo

হরতালে সহিংসতাকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা

হরতালে সহিংসতাকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা

ঢাকা, ০৬ জানুয়ারি- হরতালে সহিংসতা সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

বুধবার (০৬ জানুয়ারি) মিরপুরের একটি কমিউনিটি সেন্টারে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় তিনি এ নির্দেশ দেন।

জঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদ প্রতিরোধ নিয়ে এ মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়। 

জামায়াতের হরতাল আহ্বান নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘হরতাল তারা ডাকতেই পারে। তবে এ হরতাল জনগণ সমর্থন করে কিনা তাই বিষয়। হরতালের দিন দোকান-পাট খোলা থাকবে। রাস্তাঘাট সচল থাকবে। যদি কেউ রাস্তায় নেমে যানবাহন বন্ধের চেষ্টা করে, ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করে,  তাহলে যা করার তা করা হবে। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ও জনগণ তাদের প্রতিহত করবে।’

জামায়াতের আমির মতিউর রহমান নিজামীর ফাঁসির আদেশ বহালের প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার (০৭ জানুয়ারি) দেশব্যাপী সকাল-সন্ধ্যা হরতাল ডেকেছে দলটি।

দোকান-পাট খোলা রাখার আহ্বান জানিয়ে আসাদুজ্জামান খান বলেন,  নির্বিঘ্নে দোকান-পাট খোলা রাখুন। নাশকতার আশঙ্কা নেই। কেউ যদি নাশকতার চেষ্টা করে, বোমাবাজি করে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

তিনি বলেন, বাংলাদেশে জঙ্গিবাদ প্রচারে আন্তর্জাতিক ও দেশীয় ষড়যন্ত্র চলছে। দেশে কোনো জঙ্গি নেই। তাবেলা সিজার হত্যাকাণ্ডের ঘটনা আমরা দেখেছি। টাকার বিনিময়ে তাকে হত্যা করা হয়েছে।

‘দেশে যাই ঘটুক তাতেই বলা হচ্ছে আইএস ঘটাচ্ছে। বাংলাদেশে কোনো আইএস নেই। আন্তর্জাতিক চক্রান্তকারীরা বাংলাদেশে তাদের ঘাঁটি বানাতে চায়। এদের সঙ্গে রয়েছে দেশের কিছু ধর্মান্ধ লোক।’ 

জনগণকে আহ্বান জানিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন,  চলুন আমরা আলোর পথে আল্লাহের নির্দেশ মেনে চলি। আর সেটা জঙ্গিবাদ সহিংসতা নয়, শান্তির পথে।

এ বিষয়ে মসজিদের ইমাম, খতিব এবং আলেম-ওলামাদের সহযোগিতার আহ্বান জানান তিনি। 

মন্ত্রী বলেন, আপনারা নামাজের আগে বা পরে জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে কথা বলুন। মাদকের বিরুদ্ধে কথা বলুন।

স্থানীয় সংসদ সদস্য ইলিয়াস আলী মোল্লার সভাপতিত্বে সভায় ঢাকা মহানগর পুলিশের কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া,  স্থানীয় ইমাম ও খতিবসহ আলেম-ওলামারা উপস্থিত ছিলেন।