logo

অবশেষে মুখ খুললেন অপমানিত মিস কলম্বিয়া

Shamima Seema


অবশেষে মুখ খুললেন অপমানিত মিস কলম্বিয়া

‘মিস ইউনিভার্স ২০১৫’র গ্র্যান্ড ফিনালে অনুষ্ঠানে উপস্থাপকের ভুলে ক্ষণিকের জন্য সেরা সুন্দরী হিসেবে ঘোষিত হয়েছিল আরিয়াদনা গুতিরেজের নাম। কয়েক মিনিটের জন্য মাথায় উঠেছিল মিস ইউনিভার্সের মুকুট। পরে জানা যায় তিনি হয়েছেন মিস ইউনিভার্স ফার্স্ট রানার আপ। সেই মিস কলম্বিয়া আবার শিরোনামে।

সম্প্রতি এ বিষয়ে মুখ খুললেন মিস কলম্বিয়া আরিয়াদনা গুতিরেজ। ক্ষোভ উগরে দিয়ে বললেন, শুধু তার জন্য নয়, তার দেশের কাছেও এ ঘটনা অপমানের। এমন মুহূর্তে নিজেকে সামলানো সহজ ছিল না, জানিয়েছেন আরিয়াদনা। তিনি বলেন, ‘এটা খুব অবমাননাকর। শুধু আমার জন্য বা কলম্বিয়ার জন্য নয়, অডিটোরিয়ামে উপস্থিত বাকি দর্শকের জন্যও।’

সুন্দরী প্রতিযোগিতায় নাম ঘোষণা করতে ভুল করেন সঞ্চালক স্টিভ হার্ভে। সেরা সুন্দরীর নাম ঘোষণা করতে গিয়ে তিনি প্রথম রানার আপ হওয়া মিস কলম্বিয়ার নাম বলে ফেলেন। সেইমতো তার মাথায় পরিয়ে দেওয়া মিস ইউনিভার্সের মুকুট। দেশের জাতীয় পতাকা হাতে নিয়ে উপস্থিত দর্শকদের হাত নেড়ে শুভেচ্ছা জানাচ্ছিলেন আরিয়াদনা গুতিরেজ, তখনই উপস্থাপক নিজের ভুল সংশোধন করে মিস ফিলিপাইনসের নাম ঘোষণা করেন। কিছুক্ষণ কিংকর্তব্যবমূঢ় হয়ে পড়েন সকলেই। কিন্তু নিয়ম মেনেই গুতিরেজের মাথার মুকুট খুলে নেওয়া হয়, যা পরিয়ে দেওয়া হয় মিস ফিলিপাইনসের পিয়া অ্যালোনজ়ো মাথায়। 

প্রথমে হাসিমুখে জীবনের এই ঘটনা মেনে নিলেও, পরে কান্নায় ভেঙে পড়তে দেখা যায় গুতিরেজকে। পরে অবশ্য তিনি জানিয়েছেন, ২ মিনিটের জন্য হলেও তিনি যে তার দেশকে সেরার আনন্দ দিতে পেরেছিলেন, সেটাই তার কাছে বড় পাওনা।

যে কোনও প্রতিযোগিতার দ্বিতীয় স্থানাধিকারীকে তেমন কেউ মনে রাখেন না৷ সেক্ষেত্রে গুতিরেজ নিঃসন্দেহে ব্যতিক্রম হয়ে থেকে গেলেন৷ আসল মিস ইউনিভার্সের থেকেও বেশী চর্চায় থাকলেন ২ মিনিটের মিস ইউনিভার্সই।