logo

ম্যাচ ফিক্সিং ইস্যুতে নড়েচড়ে বসলো লংকান ক্রিকেট বোর্ড

ম্যাচ ফিক্সিং ইস্যুতে নড়েচড়ে বসলো লংকান ক্রিকেট বোর্ড

কলম্বো, ০৩ জানুয়ারি- শ্রীলংকার ক্রীড়া মন্ত্রণালয় দেশটির ফিনান্সিয়াল ক্রাইমস ইনভেস্টিগেশন ডিপার্টমেন্ট (এফসিআইডি)-এর কাছে জানিয়েছে, কুশল পেরেরা এবং আরও একজন শ্রীলংকান খেলোয়াড়কে ম্যাচ ফিক্সিংয়ে জড়ানোর চেষ্টা করা হয়েছিল। 

গত অক্টোবরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের শ্রীলংকা সফর চলাকালীন সময়ে টেস্ট সিরিজে ম্যাচ ফিক্সিং করার প্রস্তাব দেয়া হয় দুই ক্রিকেটারকে। এই দুই ক্রিকেটারের একজন কুশল পেরেরা, অন্যজনের নাম জানানো হয়নি। সেসময় নেটে বোলিং অনুশীলন করা এক বোলারের মাধ্যমে কুশল এবং আরেকজন খেলোয়াড়কে ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব দেয়া হয়। দুই খেলোয়াড়ই বিষয়টি ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) দূর্নীতি দমন বিভাগ আকসু’র নজরে আনে। 

ঘটনাটা বেশ কিছুদিন আগের হলেও এখন নড়েচড়ে বসেছে শ্রীলংকার ক্রীড়া মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা কেডিএস রুয়ানচন্দ্র বলেন, ‘নেটে থাকা একজন বোলারকে ঘিরে কিছু সন্দেহ রয়েছে। আমরা মন্ত্রণালয় থেকে এই ব্যাপারটি এফসিআইডিকে জানিয়েছি।’ 

শ্রীলংকান ক্রীড়া মন্ত্রী দায়াসিরি জয়াসেকারা এর আগে বলেছিলেন, ফিক্সিংয়ে রাজি না হওয়া কুশলের ডোপ টেস্টে পজিটিভ হওয়ার ব্যাপারটা কোন ষড়যন্ত্রের অংশ হতে পারে। 

গত সপ্তাহেই ডোপ টেস্টের দ্বিতীয় পরীক্ষাতেও পজিটিভ প্রমাণ হয়েছেন শ্রীলংকার উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান কুশল পেরেরা। চূড়ান্ত শাস্তি এখনও ঘোষিত না হলেও এর জন্য চার বছরের জন্য নিষিদ্ধ হতে পারেন তিনি।