logo

খুলনার প্রথম মেয়রের ইন্তেকাল

খুলনার প্রথম মেয়রের ইন্তেকাল

খুলনা, ০২ জানুয়ারি- খুলনা সিটি করপোরেশনের প্রথম নির্বাচিত মেয়র শেখ তৈয়েবুর রহমান চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেছেন (ইনা লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। তাঁর বয়স হয়েছিল ৮২ বছর। গতকাল শুক্রবার রাত পৌনে ১১টার দিকে নগরীর একটি ক্লিনিকে তাঁর মৃত্যু হয়।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, বয়সজনিত নানা জটিলতায় ভুগছিলেন শেখ তৈয়েবুর রহমান।

তৈয়েবুর রহমান স্ত্রী, এক ছেলে ও মেয়ে রেখে গেছেন। তাঁর মরদেহ নগরীর গগনবাবু রোডের নিজ বাসায় নেওয়া হয়েছে।

শেখ তৈয়েবুর রহমান মনোনীত ও নির্বাচিত হয়ে টানা ১৭ বছর খুলনা সিটি করপোরেশনের মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি খুলনা আইনজীবী সমিতির সভাপতি, সাবেক রাষ্ট্রদূত এবং বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির আন্তর্জাতিকবিষয়ক সম্পাদক ছিলেন। খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার ব্যাপারে তিনি অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন।

১৯৯১ সালে বিএনপি ক্ষমতায় এলে মনোনীত মেয়র হিসেবে তৈয়েবুর রহমান দায়িত্ব পালন শুরু করেন। পরে ১৯৯৪ সালের ২৯ জানুয়ারির নির্বাচনে জয়ী হয়ে মেয়রের দায়িত্ব পান। পরে ২০০২ সালের ২৫ এপ্রিল দ্বিতীয় দফা মেয়র নির্বাচিত হন। ২০০৭ সালে তত্ত্বাবধায়ক সরকার আসার পর মেয়র থাকা অবস্থায় গ্রেপ্তার হন। এরপর ছাড়া পেলেও রাজনীতিতে নিষ্ক্রিয় ছিলেন তিনি।

সাবেক মেয়রের মৃত্যুর খবর শুনে মহানগর বিএনপির সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম মঞ্জুসহ বিএনপি ও এর অঙ্গ সংগঠনের নেতারা মরহুমের বাসভবনে ছুটে যান এবং পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানান।

নজরুল ইসলাম মঞ্জু জানিয়েছেন, শনিবার বেলা সাড়ে ১১টায় নগরীর হাদিস পার্কে প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। বাদ আসর বাগেরহাটের করোরী গ্রামে নিয়ে পারিবারিক কবরস্থানে শেখ তৈয়েবুর রহমানের লাশ দাফন করা হবে।