logo

পাক গায়ক আদনান সামি এখন ভারতীয় (ভিডিওসহ)

পাক গায়ক আদনান সামি এখন ভারতীয় (ভিডিওসহ)

নয়াদিল্লী, ০২ জানুয়ারি- বিশাল বপু নিয়ে গান গাইছেন একজন গায়ক, ‘তেরি উঁচি শান হ্যায় মওলা, মুঝকো ভি তো লিফট করা দে’। গানটার ভিডিও অনেকের মনে আছে। হ্যা, আদনান সামির কথাই বলছি। ২০০১ সাল থেকেই ভারতে গান গাইছেন। অনেকে হয়তো জানেনও না তিনি আসলে ভারতীয় নন, পাকিস্তানি। 

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বি প্রতিবেশি দেশ পাকিস্তান-ভারতের মধ্যে উষ্ণতাকে পেছনে ফেলে আদনান সামির মতো পাকিস্তানের আতিফ আসলাম, আলী জাফর, রাহাত ফতেহ আলী খানসহ অনেক শিল্পীই বেশ প্রতাপের সঙ্গে কাজ করছেন ভারতে। তবে বেশ কিছুদিন ধরেই ভারতে অসহিষ্ণুতা নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা তুঙ্গে। এ নিয়ে মুখ খুলে তোপে পড়েছেন বলিউড সুপারস্টার শাহরুখ-আমির পর্যন্ত। 

নতুন খবর হল, কট্টরপন্থি হিন্দুত্ববাদী সংগঠন শিবসেনাদের রক্তচক্ষুকে তোয়াক্কা না করেই এবার নাগরিকত্বই পেলেন জনপ্রিয় পাকিস্তানি গায়ক আদনান সামি। নাগরিকত্ব পাওয়ার পর নিজের অ্যাকাউন্টে ‘জয় হিন্দ’ লিখে টুইটও করেছেন তিনি। জয় হিন্দের সঙ্গে টুইটারে ভারতীয় পতাকা মিলিয়ে একটি ছবিও পোস্ট করেছেন। আদনান সামির হাতে ভারতীয় নাগরিকত্বের প্রসংশাপত্র তুলে দেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী কিরেন রিজিউ। নাগরিকত্ব পেয়ে তার বিখ্যাত গান ‘তেরি উঁচি শান হ্যায় মোলা... মুঝকো ভি তো লিফট করা দে’ গেয়েও শুনিয়েছেন।

নাগরিকত্ব দেয়ায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংকে ধন্যবাদ জানান সামি। তবে পাকিস্তানে এর প্রতিক্রিয়া কী দাঁড়ায় তাই এখন দেখার অপেক্ষা বলিউড পাড়া।

প্রসঙ্গত, ২০০১-এর ১৩ মার্চ এক বছরের ওয়ার্ক ভিসা নিয়ে প্রথমবার ভারতে আসেন আদনান সামি। তারপর থেকে বেশ কয়েকবার তার ভিসার মেয়াদ বাড়ানো হয়। ২০১৫-র মে মাসে আদনান সামির পাকিস্তানি পাসপোর্ট মেয়াদ ফুরিয়ে যায়। পাকিস্তান তা রিনিউ করতে অস্বীকার করলে ভারতের কাছে নাগরিকত্বের আবেদন করেন সামি।

নাগরিকত্ব গ্রহণের মুহূর্ত দেখুন ভিডিওতে :