logo

মদের টানে পানশালায় ফিরলেন ‘মরা মানুষ’

রাশিয়ায় নিউ ইয়ার পার্টিতে মদ খেতে খেতে ‘প্রাণ গিয়েছিল’ এক ব্যক্তির। মর্গে চলে যায় ‘বডি’। কিন্তু কী করে যেন প্রাণ ফিরে পান। তা-র-প-র। বাড়ি না ফিরে মর্গ থেকে আবার পার্টিতে ফিরে আসেন তিনি।

মদের টানে পানশালায় ফিরলেন ‘মরা মানুষ’

মস্কো, ০২ জানুয়ারি- এই খবরটা শুনলে মনের মধ্যে গুন গুন করে উঠবে চির কিশোর সেই গান— ‘‘বিপিনবাবুর কারণ সুধা, মেটায় জ্বালা মেটায় ক্ষুধা...’’ সত্যি সত্যিই মরা মানুষ বাঁচিয়ে তুলে গানের পরের লাইনটাও বাস্তব করে তুলেছে, ‘‘মরা মানুষ বাঁচিয়ে তোলে এমনই যে তার জাদু।’’

এবার কাহিনিতে আসা যাক। রাশিয়ায় নিউ ইয়ার পার্টিতে মদ খেতে খেতে ‘প্রাণ গিয়েছিল’ এক ব্যক্তির। মর্গে চলে যায় ‘বডি’। কিন্তু কী করে যেন প্রাণ ফিরে পান। তা-র-প-র। বাড়ি না ফিরে মর্গ থেকে আবার পার্টিতে ফিরে আসেন তিনি। শুনেই অবাক লাগছে তো! আর যাঁরা ‘যমলায়ে জীবন্ত মানুষ’-এর উলটো ‘পানশালায় মরা মানুষ’ প্রত্যক্ষ করেছেন তাঁদের অবস্থা একবার ভাবুন। বেশির ভাগেরই নিশ্চয়ই নেশা কেটে গিয়েছিল। অনেকে ভেবেছিল ‘নেশাটা সত্যিই বেশি হয়ে গিয়েছে।’

রাশিয়ার একেবারে পূর্ব প্রান্ত খাসাঙ্কির ঘটনা। বন্ধুদের সঙ্গে ভদকা খাচ্ছিলেন ওই ব্যক্তি। হঠাৎই অসুস্থ হয়ে পড়েন। বন্ধুরা অবস্থা ভাল নয় বুঝে অ্যাম্বুল্যান্স ডাকেন। চিকিৎসক আসেন। কিন্তু তাঁরা পৌঁছে দেখেন সব ‘শেষ’। ‘মৃত’ বলে ঘোষণা করা হয় ওই ব্যক্তিকে। পাঠিয়ে দেওয়া হয় মর্গে। কিন্তু ফ্রিজারের মধ্যেই হঠাৎ জেগে ওঠেন ওই ‘মৃত’ ব্যক্তি। পুলিশ জানিয়েছে, ‘‘ফ্রিজার রুমের মেঝেতে রাখা হয়েছিল বডি। তার পরে হঠাৎ উঠে বসেন এবং হেঁটে বাইরে চলে আসেন। জায়গাটা অত্যন্ত ঠান্ডা এবং অন্ধকার। কিন্তু তার মধ্য দিয়েই টলতে টলতে ছুটে বেরিয়ে আসেন ওই ‘মৃত’ ব্যক্তি।’’

কাহিনির শেষ এখানেই নয়। এর পরে তিনি ফিরে যান সেই পানশালায়। বন্ধুরা তখনও মদ্যপান করছেন। তবে আনন্দে নয়। পরলোকগত বন্ধুর স্মৃতিতে। তাঁকে ফিরে আসতে দেখে বন্ধুদের তো নেশা ছুটে যাওয়ার অবস্থা। কোনওরকমে সামলেও নেন তাঁরা।

আবার শুরু হয় পার্টি। এবার বন্ধুর পুনর্জন্মের পার্টি।