Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English
হাস্যরসে ভরপুর লেখা দিতে লগইন/রেজিষ্টার করুন

হাসিখুশি ক্লাব -> General

কেমতে কমু স্যার, আমি কিছুই জানি না!

গ্রামের সহজ সরল নারী নসিমনের স্বামী হঠাৎ মারা গেছে। তাকে জেরা করছে পুলিশ  তদন্ত কর্মকর্তা : আপনার স্বামী হঠাৎ মারা গেল কী করে? নসিমন : কেমতে কমু স্যার, আমি কিছুই জানি না! তদন্ত কর্মকর্তা : জানি না মানে? আপনি-ই তো বললেন যে আপনার সামনেই মারা গেছে কিছুক্ষণ আগে! নসিমন : পেরেশান হয়া বাড়িতে ঢুইকাই কইলো, ‘জলদি কিছু দেও আমারে, পেটে ইন্দুর দৌড়াইতাছে।’ তো আমি টিউবওয়েলের ঠাণ্ডা পানিতে ইন্দুর মারার বিষ গুইলা দিলাম। এরপর থেকে তো আর বিছনা ছাড়তেছে না! তদন্ত কর্মকর্তা : বলেন কি? সাংঘাতিক তো! নসিমন : এরপর আৎকা দেখলাম মুখ দিয়া ফেনা তুইলা... উঁ উঁ হুঁ হুঁ...

দুই টনের এসি বত্রিশ কেজি!

গ্রামের মাতুব্বর চিন্তাগ্রস্ত মুখে চায়ের দোকানে বসে আছেন। তার এক বন্ধু জিজ্ঞাসা করেন-  বন্ধু: কি ব্যাপার? সব ভালো তো! মাতুব্বর: আর বলিস না! দুই টনের এসি কিনে বাড়ি আনার পর ওজন করে দেখি সেটা মাত্র বত্রিশ কেজি! এভাবে ঠকাবে, আমার ধারণার বাইরে!

আপনি মনে হয় বিবাহিত

পিন্টু সদ্য বিয়ে করেছে। হাতে তখনো মেহেদির চিহ্ন। একদিন তুমুল ঝড়-বৃষ্টি-বজ্রপাত হচ্ছে। এমন দুর্যোগেও রাস্তায় দেখা গেল তাকে। একটি নামিদামি পিৎজার দোকানে দৌড়ে গিয়ে ঢুকলো ছাতা গোটাতে গোটাতে।  সেলসম্যান পিৎজার বক্স তার হাতে দিতে দিতে প্রশ্ন করলো- সেলসম্যান: আপনি মনে হয় বিবাহিত... পিন্টু: নাইলে কোন মা তার ছেলেকে এই কেয়ামতের মধ্যে বাইরে পাঠায়? তাও একটা পিৎজার লাইগা! কও দেহি মিয়া...

তুমি সারাক্ষণ আমার সঙ্গেই লড়াই করতে ব্যস্ত…

স্বামী : আই লাভ ইউ! স্ত্রী : আই লাভ ইউ ঠু! আমি তোমাকে এত ভালোবাসি... এত ভালোবাসি যে, পুরা দুনিয়ার সঙ্গে লড়াই করতে পারি তোমার জন্য! স্বামী : কিন্তু তুমি তো সারাক্ষণ আমার সঙ্গেই লড়াই করতে ব্যস্ত। স্ত্রী : কারণ, আমার কাছে তুমিই হচ্ছে পুরো দুনিয়া!

গানের চেয়ে ওর কান্না বেশি সুরেলা!

স্ত্রী রাত করে অফিস থেকে ফিরে দেখলেন বাচ্চা কান্নাকাটি করছে। পাশে তার বাবা হতবুদ্ধি অবস্থায় দাঁড়িয়ে আছে। তার হাতে বাবুর অনেকগুলো খেলনা। এটা দেখে স্ত্রী বিরক্ত হয়ে বললেন- স্ত্রী : এত সার্কাস না করে বাচ্চাকে ঘুমপাড়ানি গান শুনালেই তো পারতে! জান না, ওই গান শুনলে সে ঘুমিয়ে পড়ে! স্বামী : সেই চেষ্টাও করেছি ম্যাডাম। কিন্তু তাতে বাচ্চার চোখে ঘুম তো আসলোই না, উল্টা পাশের ফ্ল্যাটের ভাবি এসে বলে গেলেন, ‘এর চেয়ে বাচ্চাকে কাঁদতে দিন’। আপনার গানের চেয়ে ওর কান্না বেশি সুরেলা।  

ইন্নালিল্লাহ... তুই এইটা কী করলিরে হার্মাদ!…

মন্টু : সম্ভবত শোকাবহ ঘটনার কারণে আগামীকাল আমাদের কলেজ বন্ধ ঘোষণা করা হবে? রঞ্জু : কেন কেন? কীসের শোকের ঘটনা! মন্টু : আজ ক্লাসে দেওয়া প্রিন্সিপাল স্যারের ‘আদর্শ স্ত্রী’ বিষয়ক আধা ঘণ্টার বক্তব্য রেকর্ড করেছি। এইমাত্র অডিও ক্লিপটা উনার মিসেসকে ইনবক্স করলাম...  রঞ্জু : ইন্নালিল্লাহ... তুই এইটা কী করলিরে হার্মাদ!

এ আবার কেমন কাণ্ড?

মন্টুর বাপ : আজকাল দেখছি বউয়ের চেয়ে বেশি ইজ্জত আমাকে তার কাপড়-চোপড় থেকেই মিলছে! ঝন্টুর বাপ : মানে? এ আবার কেমন কাণ্ড? ঘটনা বুঝিয়ে বল, দোস্ত! মন্টুর বাপ : না, যখনি আলমারি খুলি বউয়ের দুই-তিনটা কাপড় লাফ দিয়া আমার পায়ে পড়ে... 

যে নারী সারাক্ষণ হাসে

স্ত্রী: যে নারী সারাক্ষণ হাসে তাকে হাস্যময়ী বলে। স্বামী: আর যার হাসি বন্ধ হয়ে গেছে তাকে কী বলে? স্ত্রী: এমন লোকের নাম হাসব্যান্ড হয়। স্বামী: মানে? স্ত্রী: মানে একদম সোজা- হাসব্যান্ড মানে যার হাসি ব্যান্ড মানে বন্ধ হয়ে গেছে।

 বউয়ের নির্যাতনের শিকার

বস: অফিসে যেসব পুরুষ অধিক সময় কাটায়, হামেশা ওভারটাইম করে তারা আসলে খুব পরিশ্রমী। এদের স্ত্রীরা খুব সুখী। নান্টু: না স্যার! আসল কারণ হইলো- হয় বাড়িতে এরা সারাক্ষণ বউয়ের নির্যাতনের শিকার নয়তো অফিসে অন্য কারো আকর্ষণের শিকার।

আমার ফোন ধর না কেন?   

বন্ধু: নতুন ফোন কবে কিনলি দোস্ত? টনি: নতুন ফোন না। গার্লফ্রেন্ডের ফোন। বন্ধু: গার্লফ্রেন্ডের ফোন নিয়া ঘুরতাছোস! মতলবটা কী? টনি: দেখা হইলেই বেটি প্যানর প্যানর করে- আমার ফোন রিসিভ করো না কেন? আমার ফোন ধর না কেন? আইজকা সুযোগ পাইছি- রিসিভ কইরা নিয়া আইছি।

তুমি তো সবসময়ই এমন মোটা

স্ত্রী: আমি মুটিয়ে যাচ্ছি... স্বামী: কী যা-তা বকছো! স্ত্রী: ওহ! থ্যাঙ্কস গড! তুমি অ্যাত্ত ভালো... স্বামী: আমি তো আসলে বলতে চাইছিলাম যে, তুমি তো সবসময়ই এমন মোটা ছিলে। স্ত্রী: তোর মতো হারামি স্বামী যেন আর কারো না হয়। তুই দূর হ আমার সামনে থেকে... মুখপোড়া কোথাকার!

যদি আবার চলে যায়!

শিক্ষক: গতকাল যে পড়া দিয়েছি, তা মুখস্ত কর নাই কেন? ছাত্র: ম্যাডাম, পড়া শুরু করতেই কারেন্ট চলে গেল... শিক্ষক: তারপর সারারাত কারেন্ট কী আর আসেই নাই! নাকি এসেছিল? ছাত্র: আসছিল আধা ঘণ্টার মধ্যেই... শিক্ষক: তো? তখন পড় নাই? ছাত্র: ম্যাডাম, এরপর এই ভয়ে আর পড়তে বসি নাই- যদি আবার চলে যায়!

 1 2 3 >  শেষ ›
Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে