Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English
হাস্যরসে ভরপুর লেখা দিতে লগইন/রেজিষ্টার করুন

হাসিখুশি ক্লাব

তুমি যদি আমাকে সত্যিই ভালোবাসতে তাহলে...…

তরুণ : আই লাভ ইউ মিলি। তুমি এই দুনিয়ার সবচেয়ে সুন্দরী মেয়ে। মিলি: কিন্তু তোমার পেছনে তো আমার চেয়ে সুন্দরী আরেক মেয়ে দাঁড়িয়ে আছে, তরুণ ভাই!  তরুণ পেছন ফিরে…

ওগো শুনছো

বল্টুর মেয়ে বল্টুকে জিজ্ঞাসা করল– বাবা আমরা যে কাগজে পড়ি গো পুজা, গো মাতা, গো হত্যা, এই ‘গো’ মানে কি? বল্টু : গো মানে গরু। তখনই রান্না ঘর থেকে ডাক এল–ও’গো’ শুনছো?

মাতাল যখন চোর  

এক মাতাল নিজের কিছু বন্ধুকে নিয়ে ফিস্ট করবে বলে রাতের বেলা নিজের বাড়ী থেকে বউকে লুকিয়ে ছাগল চুরি করল এবং কেটে রান্না করে খাওয়াদাওয়া করল। সকালে নেশা কাটার পর বাড়ী ফিরে এল এবং দেখলো যে বাড়ীর সামনে ছাগলটা বাঁধা আছে। মাতাল অবাক হয়ে বউকে জিজ্ঞাসা করল, ছাগল টা এখানে কি করে এলো? বউ বললো, ছাগলের কথা ছাড়, রাত্রে তুমি চোরের মত এসে বারান্দা থেকে নেড়ী কুকুরটাকে কোথায় নিয়ে গেলে? মাতাল অজ্ঞান!

নেড়ী কুকুরটাকে কোথায় নিয়ে গেলে?

এক মাতাল নিজের কিছু বন্ধুকে নিয়ে ফিস্ট করবে বলে রাতের বেলা নিজের বাড়ী থেকে বউকে লুকিয়ে ছাগল চুরি করল এবং কেটে রান্না করে খাওয়াদাওয়া করল। সকালে নেশা কাটার পর বাড়ী ফিরে এল এবং দেখলো যে বাড়ীর সামনে ছাগলটা বাঁধা আছে। মাতাল অবাক হয়ে বউকে জিজ্ঞাসা করল, ছাগল টা এখানে কি করে এলো? বউ বললো, ছাগলের কথা ছাড়, রাত্রে তুমি চোরের মত এসে বারান্দা থেকে নেড়ী কুকুরটাকে কোথায় নিয়ে গেলে? মাতাল অজ্ঞান!

ওকে আপনার পরিচয়পত্রটা দেখান!

একদিন এক কৃষকের বাড়িতে হানা দিলেন এক গোয়েন্দা। সহজ সরল কৃষককে ধমক দিয়ে গোয়েন্দা বললেন, ‘সরে দাঁড়াও, আজ তোমার বাড়িতে তল্লাশি করব!’ কৃষক বললেন, ‘তল্লাশি করতে চান, করুন স্যার। কিন্তু দয়া করে বাড়ির উত্তর দিকের মাঠটাতে যাবেন না।’ গোয়েন্দা কৃষকের নাকের ডগায় পরিচয়পত্রটা ঝুলিয়ে বললেন, ‘এটা চেন? এখানে আমার নাম লেখা আছে—গোয়েন্দা ছক্কু মিঞা! এটা দেখলে যে কেউ ভয়ে কুঁকড়ে যায়! আর তুমি কিনা আমার কাজে বাধা দিতে চাও?’ ঝাড়ি খেয়ে আর কিছু বললেন না কৃষক। কিছুক্ষণ পরই দেখা গেল, উত্তর দিকের মাঠ থেকে গোয়েন্দা ছক্কু মিঞার চিৎকার শোনা যাচ্ছে, ‘বাঁচাও! আমাকে বাঁচাও’। কৃষক ছুটে গিয়ে দেখলেন, একটা ষাঁড় ছক্কু মিঞাকে তাড়া করছে। দূর থেকে কৃষক বললেন, ‘স্যার, ওকে আপনার পরিচয়পত্রটা দেখান!’

ফেসবুক-হোয়াটস্আপ কি বন্ধ করে দিয়েছে নাকি?

অগোছালো স্বভাবের জন্য পরিচিত মিলির স্বামী আনিস বাসায় ফিরেই- আনিস: কী ব্যাপার! আজ ঘর-দোর সব ফিটফাট লাগছে! ফেসবুক-হোয়াটস্আপ কি বন্ধ করে দিয়েছে নাকি? মিলি: না তো!  আনিস: তাহলে? জবাব দিল তাদের আট বছরের কন্যা শান্তা-   মোবাইলের চার্জারটা পাচ্ছিল না আম্মু। সেটা খুঁজতে গিয়েই পুরো ঘর ওলট-পালট। শেষে বাধ্য হয়েই ঘর গুছিয়েছে... আমাকে সঙ্গে নিয়ে...

নারীর দশ পরিবারের টেনশন

স্ত্রী: বাংলাদেশের বিবাহিত নারীরা একসঙ্গে দশ পরিবারের টেনশন মাথায় নিয়ে চলেন।   স্বামী: সেই দশটি পরিবার কোনগুলো? স্ত্রী: নিজের পরিবার, বাপের পরিবার, প্রিয় বান্ধবীর পরিবার, দুই নিকটতম প্রতিবেশীর পরিবার। বাকি পাঁচটি হচ্ছে ইন্ডিয়ান টিভি সিরিয়ালের বউদের নিজ নিজ শাশুড়িদের নিয়ে টেনশন।

পার্টিতে স্ত্রীর খোশগল্প দেখার পর

কুখ্যাত সন্ত্রাসী হালিম এক পার্টিতে গিয়ে দেখলো তার স্ত্রী এক স্মার্ট তরুণের সঙ্গে খোশগল্প করছে-   হালিম: বাসায় চলো জলদি, তোমার ঘায়ে মলম দিতে হবে। স্ত্রী: কিন্তু আমার তো কোনো ঘা নেই শরীরে! হালিম: আমরা বাসায়ও তো পৌঁছাইনি এখনো!

আপনাকে কষ্ট দেওয়ার জন্য দুঃখিত...

এক ভদ্রলোকের গাড়ি পার্কিং থেকে চুরি হয়ে গেল। অনেক খোঁজাখুঁজি করেও গাড়ির হদিস পেলেন না। তবে দুই দিন পর হারানো গাড়িটাকে আগের জায়গায় দেখে অবাক। হারানো বাহন ফিরে পেয়ে ভীষণ আনন্দিত হয়ে দৌড়ে গাড়ির কাছে গেলেন। ড্রাইভিং সিটে একটা মুখবদ্ধ খাম। খুলে দেখলেন ভেতরে দেওয়া চিরকূটে লেখা, “মায়ের শরীর হঠাত্ খারাপ হয়ে যাওয়ায় হাসপাতালে নেওয়া প্রয়োজন হয়ে পড়েছিল। কিন্তু একে তো রাত, তার ওপর ছুটির কারণে কোনো গাড়ি না পাওয়ায় আপনার গাড়ি ব্যবহার করতে বাধ্য হয়েছিলাম।” বিনীতি ভঙ্গিতে আরো লেখা রয়েছে, “আপনাকে কষ্ট দেওয়ার জন্য দুঃখিত। গাড়িতে যত পেট্রল ছিল, সব আগের মতো আছে। তা ছাড়া আপনার গাড়ির খারাপ তালাটাও ঠিক করে দিয়েছি। গাড়ি ব্যবহারের বিনিময়ে আপনার ও আপনার পরিবারের জন্য ১০টা সিনেমার টিকিট দিলাম। এই চিঠির খামের মধ্যেই সেগুলো পাবেন। টিকিটগুলো আগামীকালের, নাইট শো। আমি জানি, আপনার বাসার কাজের মেয়েসহ আপনারা ১০ জন। আপনাদের খাবারের জন্য রাখা আছে সিনেমা হলের ফুড কোর্টের ভাউচারও (বিল পরিশোধিত)। সিনেমা দেখার পর যা ইচ্ছা খেয়ে নেবেন।” সব শেষে আবারো বিনীত অনুরোধ, “আমার অনন্যোপায় অপরাধের জন্য ক্ষমা করে দেবেন!” ১৫ লাখ টাকা দামী গাড়িটা ফেরত পাওয়ায় পরিবারের সবাই ভীষণ খুশি। পরদিন উপহার পাওয়া টিকিট নিয়ে চলে সবাই গেল সিনেমা দেখতে। ছবি দেখা শেষ করে মনের মতো  স্পেশাল চিকেন-রাইস-কফি-আইসক্রিম খেয়ে বের হল সবাই; কিন্তু গাড়ি তো নেই পার্কিংয়ে। আবারো চুরি হলো গাড়িটা!? উপায় না পেয়ে ট্যাক্সি ডেকে বাড়ি ফিরে তারা দেখলো, ফ্ল্যাটের দরজা ভাঙা। ঘরের সব দামি জিনিস, আসবাবপত্র, নগদ টাকা, গয়না চুরি হয়ে গেছে। ক্ষতি প্রায় কোটি টাকা।  বাইরে টেবিলে একটি খাম পড়ে আছে।  তাতে লেখা, “সিনেমা কেমন দেখলেন? গাড়িটা আবার চুরি করে নিয়ে গেলাম। আপনি কেন গাড়ির লক আর চাবি বদলাতে ভুলে গেলেন? ওদিকে বাসা একেবার ফাঁকা রেখে কেউ সিনেমা দেখতে যায়? দেখলেন তো, এতটুকু বোকামির জন্য কত বড় ক্ষতি হয়ে গেল।” উপদেশ : কাউকে বিশ্বাস করা ভালো,কিন্তু এতোটাও উজার করে নয় যে শেষে আফসোস করা ছাড়া উপায় না থাকে।  এমএ/ ০৩:০০/ ১৫ অক্টোবর

ভারত-পাকিস্তানি রগড়

উত্তর ভারতের অনিল আর দিল্লিবাসী রেখার প্রেমে এখন ব্রেকআপ চলছে। রেখাকে অনেকদিন না দেখে বিরহকাতর অনিল ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছে: আমার কোনো মমতাজ নেই, তাই তাজমহল গড়া হলো না! জবাবে দিল্লি থেকে প্রেমিকা রেখা কমেন্ট করেছে: আগে বাথরুম তো তৈরি কর একটা! চাপ লাগলেই পুরো বাড়ির সবাই লোটা নিয়ে ক্ষেতে দৌড়াদৌড়ি আর কতদিন করবি?   (২) সংঘাত-সহিংসতায় জর্জরিত পাকিস্তানে তখন মার্শাল ল চলছে। সান্ধ্য আইনে সন্ধ্যা ৬টার পরে রাস্তায় কাউকে দেখা গেলেই গুলির নির্দেশ ছিল। এক চৌরাস্তার মোড়ে সেনাদল তাদের অবস্থান নিচ্ছিল। তখন পৌনে ৬টা বাজে। লোকজন দৌড়ে যার যার গন্তব্যে যাচ্ছে। হঠাৎ এক সৈনিক রাইফেল তাক করে দৌড়াতে থাকা এক লোককে গুলি করে মেরে ফেললো। সঙ্গী সিনিয়র চিৎকার দিয়ে উঠলো- গাধার বাচ্চা! এটা কী করলি? এখনো তো পনের মিনিট সময় বাকি আছে ছয়টা বাজতে! আমি লোকটাকে চিনি। ওর বাড়ি এখান থেকে কমসে কম এক ঘণ্টার রাস্তা। ১৫ মিনিটে কিছুতেই ওখানে পৌঁছাতে পারতো না সে, ওস্তাদ! একথা বলে সদ্য গুলি করা রাইফেলটা পরিষ্কারে মনোযোগ দিল সৈনিক। (৩) ফল খাওয়ার সময় মাঝপথে তাতে পোকা পেলে ক্ষতি নই। কিন্তু সমস্যা হচ্ছে যখন পোকাটার অর্ধেক পাওয়া যায়! মন্টুর বাপের পর্যবেক্ষণ (৪) স্ত্রী অসুস্থ বললে প্রথমেই তাকে হাসপাতাল-ডাক্তারের কাছে নেওয়ার আগে অন্য দুটি চেষ্টাও করে দেখতে পারেন। প্রথমত তাকে শাড়ির দোকানে নিয়ে যান। সেখানে গিয়েও সুস্থ না হলে স্বর্ণের দোকানে নিয়ে যান। এরপরও যদি সুস্থ না হয়- তবে বুঝবেন, তিনি ঠিকই অসুস্থ! মন্টুর বাপের দৃষ্টিভঙ্গি (৫) অগোছালো স্বভাবের জন্য পরিচিত মিলির স্বামী আনিস বাসায় ফিরেই- আনিস: কী ব্যাপার! আজ ঘর-দোর সব ফিটফাট লাগছে! ফেসবুক-হোয়াটস্আপ কি বন্ধ করে দিয়েছে নাকি? মিলি: না তো!  আনিস: তাহলে? জবাব দিল তাদের আট বছরের কন্যা শান্তা-   মোবাইলের চার্জারটা পাচ্ছিল না আম্মু। সেটা খুঁজতে গিয়েই পুরো ঘর ওলট-পালট। শেষে বাধ্য হয়েই ঘর গুছিয়েছে... আমাকে সঙ্গে নিয়ে... এমএ/ ১১:০০/ ১৪ অক্টোবর

বাকি দুই ঘণ্টা কোথায় ঘুমান!  

ক্লাসে এসে ছাত্রদের না পড়িয়ে ঘুমানোর জন্য কুখ্যাতি আছে সজিবের। অলস আর ফাঁকিবাজ স্বভাবের সজিব সেদিন ছাত্রদের ঘুম বিষয়ে নসিহত করছিলেন ক্লাসে- সজিব : দেখ বাচ্চারা, বেশি ঘুম কিন্তু ভালো না। এই আমাকে দেখ! আমি দিনে আট ঘণ্টার বেশি ঘুমাই না। ছাত্র : কিন্তু স্যার, স্কুল তো মাত্র ছয় ঘণ্টার... বাকি দুই ঘণ্টা কোথায় ঘুমান!

দুনিয়ার শ্রেষ্ঠ কৃপণ!

ত্রিভুবন খ্যাত কৃপণ ছিলেন ভবেশবাবুর বাবা। তিনি যখন মৃত্যু শয্যায় তখন ছেলেকে বলে যান- আমি তো আর থাকবো না; তবে যদি কখনো কোনো বিষয়ে কোনো পরামর্শের প্রয়োজন হয়, আমার এক কৃপণ বন্ধু আছে, তার নাম হর কুমার, তার কাছ থেকে পরামর্শ নিবি। ভবেশের বাবার মৃত্যু হলো। পরে জায়গা-জমি সংক্রান্ত একটা ব্যাপারে ভবেশবাবু পরামর্শ নিতে একদিন সন্ধ্যার পর পিতৃবন্ধু হর কুমারের কাছে গেলেন। কাকা হরকুমার ভবেশকে সাদরে ঘরে নিয়ে বসালেন। এসময় হরকুমার বললেন, কথা বলতে তো আর আলোর প্রয়োজন নেই, তাহলে বাতিটি নিভিয়ে দেই। হর কুমার বৈদ্যুতিক বাতিটি নিভিয়ে দিলেন। কথাবার্তা শেষে ভবেশবাবু যখন উঠতে যাবেন, তখন হর কুমার বললেন- দাঁড়াও, বাতিটা এবার জ্বালিয়ে দেই, নইলে তুমি বেরুবার রাস্তা দেখতে পাবে না। ভবেশ তখন বললেন- একটু দাঁড়ান কাকা, আমি লুঙ্গিটা পরে নিই। হরকুমার অবাক হয়ে জিজ্ঞেস করলেন- মানে? তুমি কি এতক্ষণ লুঙ্গি না পরা অবস্থায়ই আমার সঙ্গে কথা বলছিলে? ভবেশ বললেন- আজ্ঞে কাকা! অন্ধকার ঘরে লুঙ্গি পরে সেটার অপচয় করে কি লাভ? খুলে রাখলে বরং লুঙ্গিটার পরমায়ু অন্তত ৩/৪ ঘণ্টা তো বাড়বে! এমন জবাব শুনে হরকুমারবাবুর হার্ট অ্যাটাকের দশা হলো! হতাশ কণ্ঠে বললেন- তুমি কেন অযথা আমার কাছে পরামর্শ নিতে এসে সময়ের অপচয় করলে? তুমি তো ইতোমধ্যেই আমাকে ছাড়িয়ে গেছো, বাপু... এমএ/ ১০:২২/ ১৪ অক্টোবর

 1 2 3 >  শেষ ›
Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে